রজভীয়া হেফজখানা ও ইয়াতিমখানার সভায় বক্তারা সুনাগরিক গড়তে মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা ভূমিকা রাখছে

চন্দনাইশ উপজেলাস্থ মাওলানা ক্বারী মুহাম্মদ ফেরদৌসুল আলম খান আলকাদেরী প্রতিষ্ঠিত ক্বাদেরীয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট পরিচালনাধীন রজভীয়া হেফজখানা ও ইয়াতিম খানার ১১তম বার্ষিক সভা, পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হাফেজদের দস্তারবন্দী ও পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) মাহফিল গত ১২ জানুয়ারি’ ২০১৮ শুক্রবার দিনব্যাপী উত্তর বরকল বেলায়েত আলী চৌধুরীর বাড়ী সংলগ্ন মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুহাম্মদ আবদুল জব্বার চৌধুরী। উদ্বোধক ছিলেন, বরকল ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান। মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি ডা. মোহাম্মদ নুরুল আবছার খানের সভাপতিত্বে, শাহজাদা মুহাম্মদ কিবরিয়া হোসেন আজম ও জি.এম. শাহাদত হোসাইন মানিকের যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, চসিক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, চন্দনাইশ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা মুহাম্মদ সোলাইমান ফারুকী, উপাধ্যক্ষ আল্লামা মুফতি কাজী মুহাম্মদ আব্দুল ওয়াজেদ, অধ্যক্ষ আল্লামা শাহ খলিলুর রহমান নিজামী, শাহজাদা সৈয়দ আবু মুহাম্মদ মোতাছিম বিল্লাহ সম্পদ সুলতানপুরী (মজিআ), পীরজাদা আলহাজ্ব খোরশেদ উল্লাহ রজায়ী, মুহাম্মদ শওকত হোসেন ফিরোজ, ডা. মোস্তফা মুহাম্মদ আকাশ, শাহজাদা আবদুল হাই মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান খান, লায়ন মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন সিকদার, হাজী আহমদ হোসেন। প্রধান বক্তা ছিলেন, পীরে ত্বরিকত আল্লামা আবুল কাশেম নুরী (মজিআ)। বিশেষ বক্তা ছিলেন মাওলানা বখতেয়ার হামিদ আলকাদেরী, মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুর রহমান আলকাদেরী, মাওলানা হাফেজ মুহাম্মদ ইসমাইল। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মাওলানা ক্বারী মুহাম্মদ ফেরদৌসুল আলম খান আলকাদেরী।
সভায় বক্তারা বলেন, আচরণে ও কর্মে ইতিবাচক পরিবর্তন ও উন্নয়ন সাধনই শিক্ষার উদ্দেশ্য। নৈতিক শিক্ষার সঙ্গে যেসব বিষয় সরাসরি সম্পর্কিত সেগুলো হলো সুশাসন, ন্যায়বিচার, মানবাধিকার, দুর্নীতি দমন, অর্থনৈতিক উন্নয়ন, প্রবৃদ্ধি, শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষা ইত্যাদি। আচরণে অভিষ্ট ইতিবাচক পরিবর্তন ও উন্নয়ন সাধনের জন্য নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে তথ্য প্রদান বা জ্ঞান দান করাকে শিক্ষা বলে। আর ধর্মীয় ও নৈতিক শিক্ষার জন্য মাদ্রাসা শিক্ষার বিকল্প নাই। বর্তমানে বস্তুবাদী শিক্ষা ও আর্থসামাজিক মূল্যবোধের অবক্ষয় আমাদের সমাজকে করেছে কলুষিত, জাতিকে করেছে কলঙ্কিত, দেশকে করেছে প্রশ্নবিদ্ধ। এ পরিস্থিতিতে ইসলামের সঠিক ব্যাখ্যা জানা, অবক্ষয়পীড়িত সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠা, দেশপ্রেম জাগ্রত সুনাগরিক তৈরির জন্য মাদ্রাাসা শিক্ষা ব্যবস্থা অনন্য ভূমিকা রাখছে। বক্তারা আরও বলেন, জঙ্গীবাদ-সন্ত্রাসবাদ বর্তমানে বৈশ্বিক সমস্যা। নৈতিক শিক্ষার মাধ্যমে ধর্মের সঠিক ব্যাখ্যা ও চর্চাই পারে তরুণ প্রজন্মকে জঙ্গীবাদ-সন্ত্রাসবাদ থেকে দূরে রাখতে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন, ইঞ্জিনিয়ার মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম খান, মুহাম্মদ আবু নাছের চৌধুরী, কে.এ এম রাশেদ, মুহাম্মদ কায়কোবাদ, গাজী মুহাম্মদ জাহেদুল আলম, সাংবাদিক মুহাম্মদ গোলাম সরওয়ার, মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল গফুর, মুহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন সুমন, মোঃ ফোরকান উদ্দিন চৌধুরী, মাওলানা মুহাম্মদ শফিকুল্লাহ হালেমী, মাওলানা মুহাম্মদ আবু হানিফ, মাওলানা মুহাম্মদ কামাল উদ্দিন আলকাদেরী, মুহাম্মদ আব্দুল মুবিন, হাফেজ মুহাম্মদ সৈয়দ নুর, হাফেজ মুহাম্মদ আব্দুর রহমান প্রমুখ। উল্লেখ্য যে, জলসায় হেফজ বিভাগের দুই জন ছাত্রকে কোরআন হেফজ করায় পাগড়ি পরিধান করানো হয়।

x

Check Also

চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন হাসপাতালে সেবা পক্ষ শুরু

সুলভ ও সাশ্রয়ী মূল্যে আর্ন্তজাতিক মানের স্বাস্থ্য সেবা জনগণের দূরগৌঁড়ায় পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যকে সামনে রেখে ...