পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক মানিকের উপর গুলিবর্ষণ ও হত্যা চেষ্টার ঘটনায় প্রতিবাদ সমাবেশ

১৮ নং পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক মানিকের উপর গুলিবর্ষণ ও হত্যা চেষ্টার ঘটনায় প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বাকলিয়া ছাত্রলীগ। ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি মো: ফারুকের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু, সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি, সহ-সভাপতি নোমান চৌধুরী, নাঈম রনি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগির, উপ প্রচার সম্পাদক- আবদুল হালিম মিতু, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য আবদুল্লাহ আল জোবায়ের হিমু।

বিক্ষোভ সমাবেশে ইমরান আহমেদ ইমু বলেন, প্রাচ্যের রানী চট্টগ্রামকে খুন ও খুনীর নগরীতে পরিণত করা হয়েছে। চট্টগ্রাম এখন মৃত্যু উপত্যকা। সুদিপ্ত, দিয়াজ, সোহেলের হত্যাকারীরা ৭০ লাখ নগরবাসীর সামনে দাপিয়ে বেড়ালেও পুলিশ তাদের আটক করেনি, বিচারের মুখোমুখি করেনি। তিনদিন আগে রাজনৈতিক ব্যানারের নাম বেঁচে মিছিল করে একজন ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। সিএমপি এ খুনের আসামীদের ও গ্রেফতার করেনি। বারবার খুনের পক্ষে খুনীর পক্ষে সিএমপির এ নিরব অবস্থান অপরাধীদের উৎসাহিত করেছে। যার সর্বশেষ উদাহরণ ছাত্রলীগ নেতা এনামুল হক মানিক। শুধুমাত্র একজন প্রভাবশালী রাজনীতিবিদের বিদ্যালয়ে অতিরিক্ত ফি বিরোধী আন্দোলন করায় ক্ষিপ্ত হয়ে ভাড়াটে খুনি দিয়ে মানিককে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে।

বিক্ষোভ সমাবেশে দলের সাধারণ সম্পাদক নূরুল আজিম রনি বলেন, সুন্দর নগরায়নের পরিবর্তে রাজনৈতিক দূর্বিত্তায়ণ চলছে চট্টগ্রামে। অপরাজনীতি আজ সীমালঙ্গন করছে বারবার। পুলিশ প্রশাসন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশনা মানেন না। খুনীদের বাঁচানো যেন পুলিশের প্রধান কাজ। সানোয়ারা জাহান স্কুলে ফরম পূরণে ৪৬০০ টাকা আদায়ের বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছে এনামুল হক মানিক। তার আন্দোলনে জনসাধারণ জনপ্রতি ২৬০০ টাকা করে ফেরত পেয়েছিলো। একজন প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতার সন্তান পরিচয়দানকারী যিনি ঐ প্রতিষ্ঠানের মালিক পক্ষ তখন থেকে নানাভাবে মানিককে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিলো। গতরাতে মানিককে রমজান নামের এক সন্ত্রাসী মূলত ভাড়াটে হিসাবে ঐ প্রভাবশালী মহলের ইন্ধনে খুন করতে গুলি করেছিলো। আমরা মানিকের উপর গুলি বর্ষণকারী রমজান সহ উক্ত ঘটনার নির্দেশ দাতাকে গ্রেফতারের দাবী জানাচ্ছি।

আগামী ০৮ ডিসেম্বর বেলা ৩ ঘটিকায় বাকলিয়ায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও ১০ ডিসেম্বর সকাল ১০ টায় বাকলিয়া থানার সামনে অনশন কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা মিসবাহ মুনির, ওবাইদুুল হক, ইসমাইল উদ্দীন রুবেল, আকতারুজ্জামান রানা, নাঈম উদ্দীন ইরফান, মোঃ আজাদ, মোঃ আরজু, সালমান সাকিব, এমইএস কলেজ ছাত্রলীগ নেতা সুলতান মাহমুদ ফয়সাল, মোঃ সাহেদ, আহাদ, হিরা, নয়ন, আজিজ, ওয়ার্ড সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন, ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা মোঃ কপিল, সালাউদ্দীন বাদশা, মনিরাজ মনি প্রমূখ।

x

Check Also

বিজয়ে জম্ম নেওয়া মহিউদ্দিন বিজয়েই চির বিদায় চট্টগ্রাম…!

মরিতে চাই না আমি সুন্দর ভুবনে, বাচিঁতে চাই সর্বদা এই চট্টলায়….., আমি অহংকারী বীর চট্টলার ...