ট্রেনের দূর্ঘটনা এড়াতে রেল পুলিশের অভিযান চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানায় ৩ দিনে আটক ১৬


ভ্রাম্যমান সংবাদ দাতা:২৪অক্টোবর

ট্রেনে কাটা দুর্ঘটনা এড়াতে গত ৩ মাস ধরে জনসচেতনতা মূলক আলোচনাসভা, মাইকিং ও লিফলেট বিতরণসহ নানা রকম কর্মসূচি পালন করেছে চট্টগ্রাম রেলওয়ে পুলিশ। পুলিশ হেডকোয়ার্টারের নির্দেশনা অনুযায়ী চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানার অফিসার ইনর্চাজ এসএম শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। গত সেপ্টেম্বর মাসে কর্মসূচির শেষ হয়। পরে গত ২০ অক্টোবর থেকে আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে অভিযানে নামে রেলওয়ে পুলিশ। গত তিন দিনে অভিযান চালিয়ে সর্বমোট ১৬১ জনকে আটক করেছে রেলওয়ে পুলিশ। ২৩ অক্টোবর রেলওয়ে থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই মীর সাব্বির আলীর স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে রেলওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়।
চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানার ওসি এসএম শহিদুল ইসলাম বলেন, ট্রেনের ছাঁদে ভ্রমন, রেললাইনের উপর বসা, দোকার বসানো, খেলাধুলা করা কিংবা রেললাইন দিয়ে চলাচল, টিনএজারদের মোবাইল ব্যবহার করে রেল লাইনদিয়ে চলাচলের কারনে প্রতিনিয়ত প্রাণ হারাচ্ছে মানুষ। আমরা বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে জনগণকে সচেতন করার চেষ্টা করেছি। এখন যদি কেউ এই আদেশ অমান্য করে ট্রেনের ছাঁদে ভ্রমন করে, রেল লাইনে চলাফেরা করা, ও টিকিট ছাড়া ষ্টেশন প্রবেশ, অবৈধ ভাবে হকার ও হিজরা ষ্টেশন এলাকায় প্রবেশ করলে আমরা তাদের আটক করে আদালতে সোপর্দ করছি।
তিনি আরো বলেন, গত ৩ দিনে চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে সর্বমোট ১৬১ জনকে আইন অমান্য করার অপরাধে আটক করেছি। তাদের মধ্যে টিকিট বিহীন ট্রেন ভ্রমনের জন্য আটক ২৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে ননএফআইআর দাখিল করা হয়েছে।

অবৈধ ভাবে ষ্টেশন এলাকায় হকারী বরার জন্য ৪২ জন, চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় ভিক্ষাবৃত্তি করার অপরাধে ৩০ জন সর্বমোট ৭২ জনকে আটক করার পর মোছলেকা নিয়ে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছি, ট্রেনের ইঞ্জিনে ও ছাঁদে ভ্রমন, ষ্টেশন এলাকায় বিনা টিকিটে প্রবেশ করার কারনে ৬৫ জনকে আটক করে টিটির মাধ্যমে রেলওয়ে আইনে জরিমানা (ইএফটি) করেছি।

x

Check Also

ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ)হচ্ছে মুসলিম মিল্লাতের ঐক্যের প্রতীক,সূফি মিজান

হোসেন বাবলা:১৯নভেম্বর বন্দর নগরীতে নগর গাউছিয়া কমিটির উদ্যোগে পবিত্র মাহে রবিউল আউয়াল উপলক্ষে স্বাগত জানিয়ে ...