রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য রাজপথে বিএনপি নেতাকর্মীদের ঢল

মিয়ানমারে রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে ঢাকার রাস্তায় নেমে এসেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপির কেন্দ্রীয়, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী। ফলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শুরু হওয়া মানববন্ধনটি সকাল ১০টার আগেই মাঝারি ধরনের সমাবেশে পরিণত হয়েছে।

এ ছাড়া মানববন্ধনে ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, মহিলা দল, শ্রমিক দলসহ বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাও অংশ নিয়েছেন।

রাখাইনে রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধ ও শরণার্থীদের বাংলাদেশে আশ্রয় দেয়ার দাবিতে আজ  সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত সারা দেশে একযোগে পূর্ব ঘোষিত এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হচ্ছে।

এসময় মির্জা ফখরুল বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া ও তাদের পাশে দাঁড়ানো আমাদের মৌলিক দায়িত্ব, বিশ্ব মানবতার পাশে সব সময় দাঁড়াতে হবে, একথা পরিস্কার করে সংবিধানে বলা আছে। কিন্তু সরকার এক্ষেত্রে সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে।

সরকারকে গণবিচ্ছিন উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, গণবিচ্ছিন্ন হওয়ায় জনগণের কাছে সরকারের কোনো জবাবদিহিতা নেই।

জাতীয় প্রেসক্লাবে সামনের শুরু হওয়া মানববন্ধনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী রোহিঙ্গাদের নির্যাতনের জন্য মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচি ও দেশটির সেনাবাহিনীর কঠোর সমালোচনা করেন।

গণহত্যা থেকে প্রাণ বাঁচাতে রাখাইন থেকে বাংলাদেশে হাজার হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশের সরকার রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রতিবাদ জানাতে ব্যর্থ হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

x

Check Also

মালয়েশিয়ায় ৩৯ বাংলাদেশি আটক

    মালয়েশিয়ার অবৈধ অভিবাসীবিরোধী অভিযানে ১১৩ জনকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩৯ জনই ...