বান্দরবানে আইনশৃংখলা রক্ষায় প্রশাসনের জরুরী মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত

রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে কেউ বিভ্রান্তি ছড়াবেন না,মানবতার জন্য সকলে একযোগে কাজ করুন
………….. জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক

বান্দরবান প্রতিনিধি:
বান্দরবানে আইনশৃংখলা বজায় রাখার লক্ষ্যে প্রশাসনের জরুরী এক মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়েছে । সম্প্রতি মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা ও কোন কুচক্রীমহল যাতে দেশের অভ্যান্তরে কোন বিশৃংখলা সৃষ্টি করতে না পারে তার জন্য প্রশাসনের এই জরুরী মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়।
শনিবার দুুপুরে বান্দরবান সদরের রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারে অনুষ্টিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক । এসময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো:কামরুজ্জামান, ৬৯ পদাতিক ব্রিগ্রেডের অধিনায়ক মেজর শফিকুর রহমান পিএসসি, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী,অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুফিদুল আলম,নেজারত ডেপুটি কালেক্টর মো:আলী নুর ,পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষীপদ দাস,সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর,রেডক্রিসেন্ট ইউনিটের সম্পাদক একে এম জাহাঙ্গীর,রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারে ভিক্ষু শ্রীমৎ উ গুণ বর্ধনা মহাথের,জ্ঞানরতœ বৌদ্ধ বিহারের বিহার অধ্যক্ষ সত্যজিত থের,সাবেক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থোয়াইচ প্রু মাষ্টার,মানবাধিকার কর্মী ডনাই প্রু নেলী, দুনীর্তি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি অং চ মং মার্মাবান্দরবান কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম আলাউদ্দিন ইমামী, ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা ক্বারী নুরুল আমীন,সাধারণ সম্পাদক মাওলানা নাছির উদ্দীনসহ সরকারী বেসরকারী কর্মকর্তা ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

সভায় জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক বলেন, রোহিঙ্গাদের নিয়ে সৃষ্ট ঘটনা মায়ানমারের অভ্যান্তরীন সমস্যা। এই সমস্যা আমাদের ও ভোগাচ্ছে , তবে সরকার ও প্রশাসন সব বিষয়ে সর্তক রয়েছে । আমরা বৌদ্ধ , সনাতন , মুসলমানসহ পার্র্বত্য এলাকায় বসবাসরত সকলের নিরাপত্তা দিতে বাড়তি সতকর্তা নিয়েছি । আমাদের সবাইকে এখন একযোগে কাজ করে সম্প্রীতির বন্ধনকে অটুট রাখতে হবে , পাশাপাশি কেউ যেন রোঙ্গিাদের এই অসহায়ত্বের সুযোগে কোন ক্ষতি করতে না পারে তার জন্য সবাইকে সজাগ দৃষ্টি রাখার আহবান জানান জেলা প্রশাসক । সভায় জেলা প্রশাসক জানান, মায়ানমারে সৃষ্ট ঘটনায় বাংলাদেশের বৌদ্ধ ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর যাতে কোন হামলা না হয় তার জন্য প্রশাসন বাড়তি সতর্র্কতা নিয়েছে ।

এদিকে রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের পর সন্ধ্যায় প্রশাসনের কর্মকর্র্তার জরুরী বেঠকে বসেন ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা, শ্রী শ্রী কেন্দ্রিয় দুর্গা মন্দির, বান্দরবান সার্বজনীন কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহার,বান্দরবান ক্যাথলিক চার্চসহ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্টানে।
এসময় প্রত্যেক সভায় বক্তারা,দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে সবাইকে একসাথে কাজ করার আহবান জানান এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কারো ক্ষতি হয় এমন কোন ধরনের উস্কানিমুলক ছবি ও তথ্য আপলোড করা থেকে বিরত থাকার আহবান জানান।

x

Check Also

বান্দরবানে কোনো রোহিঙ্গা থাকবে না …..জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক

বান্দরবান প্রতিনিধি : মিয়ানমার থেকে সহিংসতার শিকার হয়ে পালিয়ে আসা কোনো রোহিঙ্গা শরনার্থী বান্দরবানে থাকতে ...