জাতি সংঘের মাধ্যমে রোহিঙ্গা মুসলিম নির্যাতনের সুরহা চাই…… ইপিজেডে ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ সমাবেশে-- মুফতি ফয়েজুল করিম

অংসান সূচির শান্তি পুরস্কার প্রত্যাহার সহ রোহিঙ্গায় দ্রুত শান্তি ফিরে আনার জোর দাবি ও হুশয়ারী দেন…!

মুঃবাবুল হোসেন বাবলা,চট্রগ্রাম১৫সেপ্টেম্বরঃ

বাংলাদেশের পাশর্^বর্তী মিয়ানমার(বার্মার) আরাকান রাজ্যের রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিম হত্যাকান্ড,নির্যাতন,বেবিচারী জুলুম,নারী নির্যাতন,ধর্ষণ এবং জ¦ালিয়ে-পুড়িয়ে ঘর-বাড়ী,সম্পদ লুটের প্রতিবাদে এক বিক্ষোভ সমাবেশ ১৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দুপুর ২টায় নগরীর ইপিজেড চত্ত্ব¡ওে অনুুষ্টিত হয়।
হাজার হাজার তৌহিদী জনতার উপস্থিতিতে বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রিয় প্রেসিডিয়াম সদস্য ও চট্রগ্রাম বিভাগীয় নায়েবে আমীর মুফতি মাওলানা সৈয়দ মোঃ ফয়েজুল করিম(পীর সাহেব চরমোনাই)।

তীব্র প্রতিবাদ করে তিনি তার বক্তব্যে বলেন, আরাকান রাজ্যের রাখাইনে মুসলিম রোহিঙ্গারা যদি বার্মার নাগরিক না হয়ে থাকে,তাহলে সেই অংশে বাঙালীদের ছেড়ে দিয়ে শান্তি প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে আসুন,অন্যতাই বাঙলার রয়েল বেঙ্গল টাইগার খ্যাত বাঙালী মুসলিমরা নাফ নদীও পাহাড় ডিঙ্গিয়ে সূচির সুখ কেড়ে নেওয়া হবে।

তিনি বৌদ্ধ ভিক্ষুদের সর্তক করে বলেন,শতবছর ধরে রোহিঙ্গারা রাখাইন রাজ্যের আরকানে বসবাস করেও নাগরিকত্ব না হলে বাঙালীদের কাছে রাখাইন রাজ্য আরকান ছেড়ে অন্যত্র চলে যাওয়ার দৃঢ় আহবান করেন।তিনি সরকারের প্রতি অনুরোধ করে বলেন, বৌদ্ধ ভিক্ষুদের বাইরের দেশের কাছে বার্মার ব্যাপারে রোহিঙ্গা মুসলিম কে সহায়তা না করতে যে প্রস্তাব দিচ্ছেন তাও বন্ধ করতে হুশয়ারী দেন।তিনি বিক্ষোভ সমাবেশের মাধ্যমে

জাতি সংঘ কে অংসান সূচির শান্তি পুরস্কার পদক প্রত্যাহারসহ রোহিঙ্গায় দ্রুত শান্তি ফিরে আন্তে শান্তি মিশন পাঠানোরা জোর দাবি তুলেন।
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ইপিজেড শাখা আয়োজিত সমাবেশে সভাপতির বক্তব্য রাখেন নগর সভাপতি মাওঃ জান্নাতল ইসলাম।আরো বক্তব্য রাখেন- ইপিজেড শাখার সভাপতিমোঃ সুজন খান,বন্দর থানা সভাপতি মাওঃ শফিউল আলম,সাঃসম্পাদক-মোঃ হারুন রশিদ,দারুস সালাম জামে মসজিদের খতিব মাওঃ মোঃ জিয়াউল হক নোমানী,নগর সহ-সম্পাদক ডাঃ আবু রেজা,যুব আন্দোলনের মোঃ বোরহান উদ্দিন,কলামিষ্ট ও লেখক শওকত হোসেন চাটগামী, ছাত্র আন্দোলনের মোঃ শাহীনুর ইসলাম,শ্রমিক আন্দোলনের হুমাযন কবির,ছাত্র নেতা শাহীন হাওলাদার সহ প্রমুখ ।
সভাপতি মাওঃ জান্নাতল ইসলাম তার বক্তব্যে সূচির পদত্যাগ সহ গণহত্যার দায়ে আন্তর্জাতিক আদালতে সূচির এ হেন জুলুম বাজ-নির্যাতনের বিরুদ্ধে মামলা করে সকল মুসিলম জনতাকে রোহিঙ্গা মুসলিম নিধনের প্রতিরোধে এগিয়ে আসার আহবান করেন।

সমাবেশে শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল ইপিজেড বে শপিং চতর থেকে শুরুর হয়ে সল্টগোলা ক্রসিং হয়ে স্টীল মিলস বাজার গিয়ে শেষ হয়।এসময় তারা ত্রান বাক্স দিয়ে রোহিঙ্গার জন্য বিশেষ অর্থ তহবিল ও সংগ্রহ করেন।

x

Check Also

চট্টগ্রামের নারী উদ্যোক্তারা অনেক বেশী সংগঠিত,ইপিবি মহা-পরিচালক

প্রধান প্রতিবেদক:চিটাগংডেইলি ডটকম, চট্টগ্রামের নারী উদ্যোক্তারা অনেক বেশী সংগঠিত। সহযোগিতা পেলে তারা রপ্তানিখাতে অবদান রাখতে ...