হাটহাজারীতে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম উদ্বোধন…. বর্তমান ইসির মাধ্যমে সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্ভব নয়--ব্যারিস্টার সাকিলা

”ষোড়শ সংশোধনী রায় বাতিলের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকারের নৈতিক পরাজয় হয়েছে”

হাটহাজারী প্রতিনিধি:১৯আগষ্ট

বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি নেত্রী ব্যারিস্টার সাকিলা ফারজানা। তাই জনগণের চাহিদা অনুযায়ী অবিলম্বে সহায়ক সরকারের মাধ্যমে আগামী সংসদ নির্বাচন দেয়ার দাবি জানিয়েছেন কারানির্যাতিত এ নেত্রী। ১৯আগষ্ট শনিবার সকালে হাটহাজারী সদরে বিএনপির নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রমে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। হাটহাজারী উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে এ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রবীণ বিএনপি নেতা আবু বক্কর মানু। হাটহাজারী উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এডভোকেট রেজোয়ান নূর সিদ্দিকী উজ্জ্বলের সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন হাটহাজারী বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক হাকিম উদ্দিন, সদস্য মোস্তফা আলম মাসুম, গাজী মোরশেদুল আলম, পাহাড়তলী বিএনপির সভাপতি গাজী ইউসুফ, নাঙ্গলমোড়া বিএনপির সভাপতি হাজী হারুন চৌধুরী, চিকনদন্ডী বিএনপির সভাপতি সৈয়দ মো.মহসীন, মির্জাপুর বিএনপির সভাপতি নুরুল বশর, সাধারণ সম্পাদক জাকির মেম্বার, নাজিম উদ্দিন, সৈয়দ ইকবাল, থানা যুবদলের আহ্বায়ক শাহেদুল আজম শাহেদ, আরিফুর রহমান, গড়দুয়ারা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলমগীর সওদাগর, ধলই বিএনপির আবদুল্লাহ আল ফারুক।

বক্তব্য রাখেন জসীম উদ্দিন মেম্বার, বাবুল মেম্বার, মোহাম্মদ দৌলত, সোহেল রানা, হাবিব লিটন, নিজাম উদ্দিন,একরাম চৌধুরী, ধলই যুবদলের সভাপতি রবি চৌধুরী, মির্জাপুর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক নুরুল করিম, নাঙ্গলমোড়া যুবদলের সভাপতি ডা.আজম, গুমানমর্দ্দন যুবদলের সাঃ সম্পাদক মোহাম্মদ হেলাল, হাটহাজারী উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক এস এম জাহেদ, সদস্য সচিব গাজী মুবিন, মো.জমির উদ্দিন প্রমুখ।

ব্যারিস্টার সাকিলা বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী রায় বাতিলের মাধ্যমে আওয়ামী সরকারের নৈতিক পরাজয় হয়েছে। এই অবৈধ সরকার অগণতান্ত্রিক পন্থায় ক্ষমতায় এসেছিল বলেই প্রথম থেকে আমরা এই সরকারকে অবৈধ এবং সংসদকেও অবৈধ বলে আসছিলাম। আজকে ষোড়শ সংশোধনী রায় বাতিলের মাধ্যমে তা প্রমাণিত হয়েছে। এই অবৈধ সরকারের অধীনে কোন নির্বাচন হতে পারে না। এই অবৈধ সরকার দেশের প্রতিষ্টিত গণতন্ত্র কে হত্যা করেছে এবং দেশের মানুষের ভোটাধিকার হরণ করেছে। তারা গণতন্ত্রের শত্র“। তাই অবিলম্বে এই অবৈধ সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে নির্বাচনকালীন একটি সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। তিনি আরো বলেন, বিএনপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান অব্যাহত থাকবে। ১৮ বছরের অধীক এবং পুরানো সদস্য নবায়ননের মাধ্যমে তৃণমূল রাজনীতিকে আরো শক্তিশালী করে গড়ে তুলা হবে। সংগঠনের কাঠামো শক্তিশালী করার মাধ্যমে আগামী দিনে স্বৈরশাসক আওয়ামীলীগের বিরুদ্ধে রাজপথে জোরালো অবস্থান গড়ে তোলার মধ্যদিয়ে সরকারের পতন নিশ্চিত করা হবে।

সাকিলা বলেন, আঃ লীগ বাংলাদেশের রাজনীতিতে কালো অধ্যায়ের সূচনা ঘটিয়েছে। প্রশাসনকে অবৈধভাবে ব্যবহার করে, সমস্ত গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানসমূহ দলীয় প্রভাবের আওতায় এনে প্রশাসন এবং জনগণের মধ্যে বিভেদ গড়ে তুলেছে। উন্নয়নের নামে মহালুটে ব্যস্ত আওয়ামী স্বৈরাচারী সরকার। যেখানে গণতন্ত্র নেই, জনগণের বাক স্বাধীনতা নেই, মিটিং মিছিল করার অধিকার নেই সেখানে উন্নয়ন হচ্ছে কাল্পনিক । প্রকৃতির কাল বৈশাখী ঝড়ে মতো তাদের সকল স্বপ্ন দুঃস্বপ্নে পরিণত হতে পারে। তাই আওয়ামী সরকারকে বিতাড়িত করতে বিএনপি নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকতেই হবে।

x

Check Also

কুুতুপালং রোহিঙ্গা মুসলিম ক‘্যাম্পে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ বিতরণ কালে-এম এ মান্নান

মিয়ানমারে সর্বনিকৃষ্টতম এ জঘন্যতম বর্বরতা ও নির্মমতার প্রতিবাদ করা বিশ্বের শান্তিকামী মানুষের নৈতিক দায়িত্ব ও ...