লালদিঘী মাঠে বৃক্ষমেলার সমাপনীতে ফরেস্ট একাডেমীর পরিচালক-নীলা দত্ত যে হারে বৃক্ষ নিধন হচ্ছে -সে হারে রোপন না হওয়াতে বনজ সম্পদ কমছে

মেলাতে এবারও বাহাদুর নার্সারী ১ম স্থান

প্রতিবেদনক:- বাবুল হোসেন বাবলাঃ১৩আগষ্ট

রোববার লালদিঘী মাঠে পক্ষকাল ব্যাপী বৃক্ষমেলার সমাপনীতে চট্রগ্রাম ফরেস্ট একাডেমীর পরিচালক নীলা দত্ত প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন,বর্তমানে দেশে যে হারে বৃক্ষ নিধন হচ্ছে -সে হারে রোপন না হওয়াতে বনজ সম্পদ কমছে। যেখানে২৫% বনজ সম্পদ থাকার কথা তা আজ মাত্র ১২% এসে দাড়িঁছে। যা অত্যন্ত দুঃখ জনক ব্যাপার। তাই প্রত্যক উপকার ভোগী মানুুষ দৈনিক একটি করে বৃক্ষ রোপন ও পরিচর্যা করে অক্সিজেনের চাহিদা পূরণে সহায়তা করলে অন্তত নিজ পরিবার হলেও নিরাপদ থাকবে।

বিশেষ অতিথি বন সংরক্ষক ডঃ জগলুল হুদা বলেন,দেশের বনজ সম্পদ বাড়াতে নার্সারীর মালিক ও কৃষকদের উৎসাহ প্রণেতা সহ বৃক্ষ সম্প্রসারণ বিষয়ে বিশেষ সুবিধা দিয়ে সরকার এই সম্পদ লাভ জনক করতে সর্বাত্মক কাজ করে যাচ্ছে।তিনি সরকার থেকে প্রাপ্ত উৎসাহ ভাতাদি সঠিক কাজে ব্যবহার করে বনায়ন সৃষ্টিতে উপহার ভোগীদের প্রতি অনুরোধ জানান।

চট্রগ্রাম উত্তর বন বিভাগ ও কৃষি সম্প্রসারণঅধিদপ্তরের যৌথ আয়োজিত মেলার সমাপনীতে জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ আব্দুল জলিলের সভাপতিত্বে অন্যান্যর মধ্যে বক্তব্যে রাখেন- কৃষি সম্প্রসারণঅধিদপ্তরের উপ-পরিচালক (কৃষিবিদ) মোঃ আমিনুল হক চৌধুরী, চট্রগ্রাম উত্তর বন বিভাগীয় কর্মকর্তা-ও মেলার সদস্য সচিব আ.ন.ম আব্দুল ওয়াদুদ,স্বাগত বক্তব্য রাখেন -নার্সারী মালিকদের মোঃ জসিম উদ্দিন,আবুল হোসেন ও আবুল কালাম আজাদ।

বৃক্ষমেলার সমাপনীতে প্রধান অতিথি চট্রগ্রাম উত্তর বন বিভাগ’এর’৫০ উপকার ভোগীর নিকট ৬৭,৮২,১৩৫টাকা( সাতছষ্ট্রি লাখ বিরাশী হাজার একশত পয়ত্রিশ টাকার) চেক বিতরণ করেন। এবারের মেলাতে বাহাদুর নার্সারী ১ম স্থান,কসমো-২য় এবং ফতেয়াবাদ নার্সারী ৩য় স্থান ট্রফিসহ সনদপত্র লাভ করেন।

উল্লেখ্য যে,গত ৩০জুলাই পরিবেশ ও বনমন্ত্রনালয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং রাঙ্গুনীয়া আসনের সাংসদ ডঃ হাসান মাহমুদ এই মেলার উদ্বোধন করেছিলন।

x

Check Also

সার্ক চেম্বার সভায় যোগ দিতে চিটাগাং চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম’র ভারত যাত্রা

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র সভাপতি মাহবুবুল আলম ২২ অক্টোবর সকাল ৯.১০ টায় ...