অস্ট্রেলিয়ার পরিবর্তে আফগানিস্তান

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে ক্রিকেটারদের দ্বন্ধ এখন চরমে। ৩০ জুন পুরোনো চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে হলেও নতুন চুক্তিতে স্বাক্ষর করেনি অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররা। তাই ক্রিকেটাররা এখন পুরোপুরি বেকার। দাবি মেনে না নেয়া পর্যন্ত তারা নতুন চুক্তিতে স্বাক্ষর করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। একই সঙ্গে বেকার থাকা অবস্থায় তারা বিদেশ সফরও বয়কট করেছে। প্রাথমিকভাবে তারা জানিয়ে দেয় ‘এ’ দলের ক্রিকেটাররা দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাবে না।

ক্রিকেটারদের বিদেশ সফর বয়কট করার কারণে অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বাতিলই হয়ে গেলো। চলতি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহেই অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের কথা ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকা ‘এ’ দলের বিপক্ষে দুটি চারদিনের ম্যাচ শেষে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ত্রিদেশীয় সিরিজ। সিরিজের বাকি দলটি ভারতীয় ‘এ’ দল।

কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের বিপক্ষে সিরিজ আয়োজন চূড়ান্ত করে ফেলেছিল। এখন সিরিজ বাতিল মানে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের জন্য বিশাল ক্ষতি। তাই সেটা পোষাতে অস্ট্রেলিয়ার পরিবর্তে আফগানিস্তানকে খুঁজে নিল আফ্রিকা। সদ্য টেস্ট মর্যাদা পাওয়া দেশটির ‘এ’ দল যদি দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে স্বাগতিক এবং ভারতীয় ‘এ’ দলের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে পারে, তাহলে টেস্ট অভিষেকের আগে তাদের জন্য এটা হবে উপরি পাওনা।

দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দাওয়াত পেয়ে আনন্দে আত্মহারা আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী শফিকুল্লাহ স্টানিকজাই বলেছেন, ‘ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা থেকে আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজে অংশগ্রহণের বিষয়ে আমন্ত্রণ পেয়ে আমরা খুবই খুশি।ক্রিকেটের যে কোনো পর্যায়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় এটা আমাদের প্রথম সফর। আমরা আশাবাদী এই ত্রিদেশীয় সিরিজ থেকে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে আমরা আরও অনেক বেশি অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারবো।’

২৬ জুলাই শুরু হবে ত্রিদেশীয় সিরিজ। সিরিজে অন্তত ৫টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে আফগানিস্তান ‘এ’ দল। এ উপলক্ষে ইতিমধ্যে দলও ঘোষণা করেছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। জাতীয় দলের অধিকাংশ ক্রিকেটারকেই ‘এ’ দলের ব্যানারে দক্ষিণ আফ্রিকায় পাঠানো হচ্ছে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য।

১৫ সদস্যের আফগানিস্তান ‘এ’ দল
উসমান গনি, জাভেদ আহমাদি, রহমত শাহ, ইউনাস আহমদজাই, নাসির জামাল, নজিবুল্লাহ জাদরান, শফিকুল্লাহ, আফসার জাজাই (উইকেটরক্ষক), করিম জানাত, শরাফুদ্দিন আশরাফ, ইয়ামিন আহমদজাই, ফরিদ আহমদ, ইহসান জানাত, নওয়াজ খান, ইবরাহিম আবদুল রহিমজাই।

x

Check Also

সরকারের জোর কূটনৈতিক প্রচেষ্টার ফলেই রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বিশ্ব জনমত সৃষ্টি হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

  ২৩ নভেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আন্তর্জাতিক মহলে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে ...