`সিনেমা হল কারো বাপের জমিদারি না‍‍`

জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আব্দুল আজিজকে ইঙ্গিত করে প্রযোজক ও অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল আরো বলেছেন, সিনেমা হল কারো বাপের না। একশো সিনেমা হলে প্রজেকটর বসাইছে বলে সিনেমা হল উনার? উনার ইচ্ছা হইলে সিনেমা চলবে, না হইলে চলবে না, এটা বললে হবে না। প্রজেক্টর বসাইছে, যার ছবি যাবে তার ছবিই চালাতে হবে। এটা কারো বাপের জমিদারি না যে, আপনি না করে দিলেন অমুকের ছবি চলবে আর তমুকের ছবি চলবে না। আমিও দেখবো আপনার সিনেমা হলে ছবি চলে কিভাবে?

বৃহস্পতিবার টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের বর্তমান সংকট কাটিয়ে উঠতে এফডিসিতে আয়োজিত এক মতবিণিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। এসময় ডিপজল আরো বলেন, সরকার বলছিলো যে ৫০টি সিনেমা প্রজেক্টর দিবে। আমি বলছি, আমি নিজেই একশো হলে প্রজেক্টর দিবো ইনশাল্লাহ্। আর আপনাদের যেকোনো সহায়তায় আমি পাশে আছি।

মনোয়ার হোসেন ডিপজল বলেন, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের সবাইকে নিয়ে একটা ফেডারেশন করলে আমরা বাঁচতে পারবো। ফিল্মটা থাকবে। ইন্ডাস্ট্রিটা ধ্বংস হবে না। এই ইন্ডাস্ট্রি ধ্বংস করার জন্য ধুম পরিকল্পনা চলছে। এখানেও ইন্ডিয়ান দালাল ঢুকে গেছে।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত হন টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র নির্মাতাসহ অভিনয় শিল্পী সংঘের নেতারাও। এসময় সকলে টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের মানুষদের নিয়ে একটি ফেডারেশন গঠনের আহ্বান জানান।

x

Check Also

নায়করাজের জীবনী লেখার অনুমতি রয়েছে: ছটকু

বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী নায়করাজ রাজ্জাক। এই মহানায়কের জীবনী লিখছেন চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক ছটকু আহমেদ। আর ...