মৌসুমী ও মিম, অভিজ্ঞতার পার্থক্য ১৪ বছর

সম্প্রতি শেষ হয়েছে ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ নামক একটি চলচ্চিত্রের শুটিং। এই সিনেমায় ৯০ দশক থেকে সাড়া জাগানো সিনিয়র অভিনেত্রী মৌসুমীর সঙ্গে অভিনয় করেছেন সমসাময়িক জনপ্রিয় অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা সাহা মিম। কেমন লাগলো ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ সিনেমায় মৌসুমীর সঙ্গে অভিনয় করতে?

প্রসঙ্গত মীম তার নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করতে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিখেছেন: ‘মৌসুমী আপুর সঙ্গে কাজ করতে চমৎকার লেগেছে। তিনি সবসময়ই সুন্দরী ও মমতাময়ী অভিনেত্রী, তবে তার প্রেমময় ও দয়াশীল স্বভাবের তারিফ না করলেই নয়। আমি নিঃসন্দেহে তার ভক্ত ছিলাম ও আছি।’

‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ ছবি প্রসঙ্গে মনতাজুর রহমান আকবর জানান ফাইনাল এডিটিং, ব্যাকগ্রাউণ্ড মিউজিক এবং কিছু ভিএফএক্স’র কাজ শেষে পুরো চলচ্চিত্রটি যখন পূর্ণাঙ্গতা পাবে তখনই চলচ্চিত্রটি মুক্তি দেয়ার জন্য চূড়ান্ত করা হবে। তাই এখনই নিশ্চিত বলা যাচ্ছে না চলচ্চিত্রটি কবে মুক্তি পাবে।’

এ দিকে মৌসুমী এরই মধ্যে শেষ করেছেন ফেরদৌস প্রযোজিত ‘পোস্ট মাস্টার-৭১’র কাজ। এতে তার বিপরীতে আছেন ফেরদৌস। এ ছাড়া সম্প্রতি মৌসুমী ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি’র সভাপতি বরাবর কার্যনির্বাহী সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেছেন।

মিম এরই মধ্যে শেষ করেছেন সৃজিত মুখার্জির ‘ইয়েতি অভিযান’। এতে তার বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জি।

উল্লেখ্য, মৌসুমী’র সম্পূর্ণ নাম আরিফা পারভিন মৌসুমী। ১৯৯৩ সালে মুক্তি প্রাপ্ত ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার সিনে জগতে তার অভিষেক হয়েছিল। এদিকে বিদ্যা সিনহা সাহা মিম একাধারে মডেল, অভিনেত্রী ও লেখিকা। লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার ২০০৭ প্রতিযোগিতায় তিনি প্রথম-স্থান লাভ করেন। ২০০৭ সালে হুমায়ুন আহমেদ পরিচালিত ‘আমার আছে জল’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার অভিষেক ঘটে।

১৯৯৩ থেকে ২০০৭, মধ্যে কেটে গিয়েছে দীর্ঘ ১৪ বছর। ১৪ বছরের অভিজ্ঞতার পার্থক্য নিয়ে ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ সিনেমায় মিলিত হয়েছেন তারা।

x

Check Also

তাহসান-মিথিলার সম্পর্কে নতুন মোড়

গায়ক, মডেল ও অভিনেতা তাহসানের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজ থেকে বৃহস্পতিবার বিচ্ছেদের কথা জানানো হয়। তাহসানের ...