পশ্চিম ধলই স্কুলে চারা বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা


পরিবেশের বিরূপ আচরণ থেকে রক্ষা পেতে বৃক্ষরোপনের বিকল্প নেই
পরিবেশ দিন দিন বিরূপ আচরণ করছে। এর কারণ হচ্ছে আমরা নির্বিচারে বৃক্ষ নিধন করছি। ফলে পরিবেশের উপর একটি প্রকট প্রভাব পড়ছে। যা কারণে পরিবেশও আমাদের সাথে বিরূপ আচরণ করছে। ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য একটি সুন্দর ও বাসযোগ্য পৃথিবী তৈরী করে যেতে হলে বৃক্ষ রোপনের বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন বক্তারা। রবিবার হাটহাজারী উপজেলার পশ্চিম ধলই উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের মাছে চারা গাছ বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা উপরোক্ত মন্তব্য করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ রফিক। প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মাস্টার আশুতোষ দে। সহকারী প্রধান শিক্ষক আবু মোহাম্মদ ইসহাকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিলীমা পালিত, প্রাণজিৎ আর্চায্য, আশীষ ভট্টাচার্য, খোলেমদ আলম, মাওলানা আবুল বশর, রুনা লায়লা, শিখা রাণী দাশ, লিটন ভট্টাচার্য, এস এম রাসেল প্রমুখ। অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রায় তিন হাজার ফলজ, ওষুধীসহ বিভিন্ন প্রজাতির চারা গাছ বিতরণ করা হয়। যেসব শিক্ষার্থী বেশি বেশি গাছ রোপন করবে তাদের জন্য বিভিন্ন ব্যবহারিক পরীক্ষায় আলাদা আলাদা নম্বর দেয়া হবে।
অনুষ্টানে অতিথিরা বলেন, ‘বিশ্ব জুড়ে যে বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি পেয়েছে তা নিধন করে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করতে বৃক্ষ রোপনের কোন বিকল্প নেই। প্রতিনিয়ত কাছ নিধন করা হচ্ছে। এর ফলে পরিবেশ ভারসাম্য হারাচ্ছে। পরিবেশের উপর বিরূপ প্রভাব পড়ছে। যার ফলাফল হিমেবে বর্ষাকালে বৃষ্টি হচ্ছে না, আবার শীতের সময় প্রচুর বৃষ্টি হচ্ছে। পরিবেশের এ বিরূপ প্রভাব থেকে বাঁচতে হলে বেশি বেশি গাছ রোপন করতে হবে। কারণ মানবজীবনে বৃক্ষ হচ্ছে মানুষের সবচেয়ে ভালোবন্ধু। আমাদের ত্যাগকৃত কার্বন গ্রহণ এবং আমাদের জন্য সতেজ অক্সিজেন কেবল বৃক্ষই দিয়ে থাকে। তাই ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য পৃথিবী গড়তে বেশি বেশি বৃক্ষ রোপনের বিকল্প নেই। অতিথিরা সকল শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদেরকে বেশি বেশি বৃক্ষ রোপনের আ‎হ্বান জানান।

x

Check Also

হযরত নজীর আহমদ শাহ আল মাইজভাণ্ডারী (রহ.) এর বার্ষিক উরস শরীফ আগামী ১০ ফাল্গুন

আগামী ১০ ফাল্গুন রোজ বৃহস্পতিবার ফটিকছড়ি সুন্দরপুর ছিলোনিয়া হযরত নজীর আহমদ শাহ আল মাইজভাণ্ডারী (রহ.) ...