ক্রিকেট ইতিহাসে বিরল রেকর্ড গড়লো পাকিস্তান

আজ ইংল্যান্ডের ওভালে ভারতকে ১৮০ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে শিরোপা জয় করলো পাকিস্তান। পাকিস্তানের করা ৪ উইকেটে ৩৩৮ রানের জবাবে ভারত মাত্র ১৫৮ রানে অল আউট হয়ে যায়, ৩০.৩ ওভারে। এটা কেবল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি ভারতকে হারিয়ে দেওয়াই নয়, সেইসাথে দুর্দান্ত একটি বিশ্বরেকর্ডও গড়ে ফেলেছে পাকিস্তান।

আইসিসির কোনো আসরের ফাইনালে কোনো দলই এত বড় ব্যবধানে জয় পায়নি। এর আগে ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়া-ভারত ম্যাচের ব্যবধানটি ছিল সবচেয়ে বড়।

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে পরাজিত হওয়ার পর ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি বলেন, আমি তাদের ধন্যবাদ জানাই। তারা যেভাবে খেলেছে, তাতে তাদের প্রতিভাধর খেলোয়াড়ের পরিচয় পাওয়া যায়। তারা আবারো প্রমাণ করেছে, তাদের দিনে তারা যেকোনো দলকে বিধ্বস্ত করতে পারে। তারা আমাদের হতাশ করেছে।

তবে আমার মুখে হাসি এজন্য যে, আমরা ভালো খেলে ফাইনালে গিয়েছি। আজ আমাদের সব বিভাগে পর্যুদস্ত করার কৃতিত্ব তাদের। খেলাধুলায় এটা হয়। আমরা কাউকেই হালকাভাবে নেইনি। বল হাতে আমরা আরো কয়েকটি উইকেট নেয়ার সুযোগ সৃষ্টি করেছিলাম। আমরা বল হাতে সর্বাত্মক চেষ্টা করেছি।

তিনি বলেন, তবে তারা ছিল আগ্রাসী। আমাদের হৃদিক ছাড়া আর কেউ প্রতিরোধ গড়তে পারেনি।

তিনি আরও বলেন, তবে আমরা মাত্র ক্রিকেটের একটি খেলায় হেরেছি। আমাদের ভুলগুলো থেকে শিক্ষা নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
পাকিস্তান ইনিংস: ৩৩৮/৪ (৫০ ওভারে) (আজহার ৫৯, ফখর ১১৪, বাবর ৪৬, মালিক ১২, হাফিজ ৫৭*, ইমাদ ২৫*; ভুবনেশ্বর ৪৪/১, বুমরাহ ৬৮/০, অশ্বিন ৭০/০, হার্দিক ৫৩/১, জাদেজা ৬৭/০, কেদার ২৭/১)।

ভারত ইনিংস: ১৫৮ অলআউট (৩০.৩ ওভারে) (রোহিত ০, শিখর ২১, কোহলি ৫, যুবরাজ ২২, ধোনি ৪, কেদার ৯, হার্দিক ৭৬, জাদেজা ১৫, অশ্বিন ১, ভুবনেশ্বর ১*, বুমরাহ ১; আমির ১৬/৩, জুনাইদ ২০/১, হাফিজ ১৩/০, হাসান ১৯/৩, শাদাব ৬০/২, ইমাদ ৩/০, ফখর ২৫/০)।

x

Check Also

বাংলাদেশে আসার আগে প্রস্তুতি ম্যাচে বড় জয় ওয়ার্নারদের

বাংলাদেশ সফরের আগে তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা। দুই দলে বিভক্ত হয়ে। লড়াইটা ...