ডাক্তার অবাধ্য ম্যাজিস্ট্রেট অবাধ্য, এটা অশুভ লক্ষণ: চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক

দেশের কিছু সংগঠনকে রাষ্ট্রের চেয়ে বিভিন্ন সংস্থার শক্তিশালী হয়ে ওঠাকে ‘অশুভ লক্ষণ’ বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী। তিনি বলেন, ডাক্তার অবাধ্য, ম্যাজিস্ট্রেট অবাধ্য, শাস্তি দেওয়া যায় না। অবরোধ করে বসে। এভাবে ডিপার্টমেন্ট জিতে যায়।

১৮ জুন রোববার কর্মস্থলে চিকিৎসকদের অনুপস্থিতির বিষয়ে কয়েকজন জনপ্রতিনিধির অভিযোগের জবাব দিতে গিয়ে চট্টগ্রাম জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

সভায় রাঙ্গুনিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জেলা প্রশাসককে বলেন, আমার উপজেলায় ডাক্তার আছেন ৩০ জন, কিন্তু কর্মস্থলে তাদের পাওয়া যায় না। অনুপস্থিতির বিষয়ে অভিযোগ দিলে সিভিল সার্জন বিএমএ’র (বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন) ভয়ে কোনো ব্যবস্থা নেন না।

তিনি আরও বলেন, রাষ্ট্র দুর্বল, সংস্থা শক্তিশালী, এটা অশুভ লক্ষণ। হওয়া উচিত রাষ্ট্র শক্তিশালী, সংস্থাগুলো রাষ্ট্রের সাবোর্ডিনেট (অনুগত)।

এ সময় রাঙ্গুনিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জেলা প্রশাসককে তার এলাকা (রাঙ্গুনিয়া) সরেজমিনে ঘুরে দেখে অভিযোগের সত্যতা খতিয়ে দেখার অনুরোধ জানান। সভায় কর্ণফুলী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আহসান উদ্দিন মুরাদও একই ধরনের অভিযোগ করে বলেন, আমার উপজেলায় পাঁচজন ডাক্তারের মধ্যে একজন প্রেষণে পটিয়া উপজেলায় থাকলেও বাকি চারজন ডাক্তার কর্মস্থলে অসেন না। হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর থাকলেও তাদের কাউকে কর্মস্থলে পাওয়া যায় না।

সভায় উপস্থিত চট্টগ্রাম জেলার সিভিল সার্জন মো. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী ঈদের পরপরই সংশ্লিষ্ট উপজেলাগুলোতে জনপ্রতিনিধিদের এসব সমস্যাগুলো সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন।

x

Check Also

মন্ত্রিসভায় শেখ হাসিনা জাতীয় যুব উন্নয়ন ইনস্টিটিউট আইন অনুমোদন

ঢাকা, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭ (বাসস) : দেশের তরুণদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ ...