এতো ঋণ কবে শোধ করবেন সৌম্য সরকার

২৮, ৩, ৩, ০ – চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির চার ম্যাচে তার রানের টালি। সর্ব সাকুল্যে ৩৪। উদ্বোধোনী ম্যাচে ওভালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২৮, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সমান তিন করে এবং ভারতের বিপক্ষে হাইভোল্টেজ সেমিফাইনালে এজবাস্টনের মত ব্যাটিং স্বর্গে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির এবারের আসরে তার আগের সকল রেকর্ডকে ছাপিয়ে আউট হয়েছেন শূণ্য রানে! এরও অনেক আগে থেকেই ক্রিজে খাবি খাচ্ছে তার ব্যাট।

আসর শুরুর আগে দুটি ভারত-পাকিস্তানের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচেও যথারীতি তার ব্যাট খেলেছেন যথাক্রমে ২ ও ১৯ রানের ইনিংস। ইংল্যান্ডে আসবার পথে আয়ারল্যান্ড ‘ভ্রমনে’ গিয়েযে ত্রী-দেশীয় সিরিজ খেলেছিল বাংলাদেশ, তার প্রথমটিতে ১৭, দ্বিতীয়টিতে ৫, আর শেষেরটাতে মেরেছেন ডাক! তাতে কী? মাঝের দুটো ম্যাচে খেলেছেন যথাক্রমে ৮৭* ও ৬১ রানের ঝলমলে দুটি ইনিংস! তাতেই মন ভরে গেছে?

২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক। এরপর থেকে ৩১টি ম্যাচে হাজার না পেরুনো রান (৯৫৯) যতটা না তার বিদ্ধংসী ব্যাটিংকে বোঝায় তারচাইতে ম্লান করে নামের পাশে ৩টি ডাক! গড়ে ৩৫ এর ওপরে হলেও দলের প্রয়োজনে জ্বলে উঠতে পেরেছেন খুব কম ম্যাচেই তিনি। তাই বলে একের পর এক ম্যাচে ব্যর্থতা, অ-বিবেচকের পরিচয় দিয়েও কোন অদৃশ্য কারনে দলে ঠাঁই মিলছে তার, তা বোধগম্য নয়।

তবে কী সৌম্যর ঋণ শোধ করবার আর কোন পথ নেই? আর কতদিন এমন একজন ‘ব্যাটসম্যানের’ বোঝা বয়ে নিয়ে বেড়াতে হবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে? দলে যেখানে অর্ডার নিয়ে ‘মধুর সমস্যার’ দোহাই দিয়ে ইমরুল কায়েস, সফিউল ইসলামের মত অভিজ্ঞ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোসাদ্দেক হোসেনর মত পরীক্ষিত, সানজামুলের মত পরিশ্রমী ক্রিকেটার স্কোয়াডে থাকতেও অতটা বিলাসিতা কি মানায়?

গতকাল ভারতের বিপক্ষে যা হলো, তাতে সৌম্যকে নিয়েই এখন চিন্তার ভাঁজ অনেকের। এর আগে এই ভারতের বিপক্ষেই ৫ ম্যাচে করেছেন ১৫৭। গতকালের হাইভোল্টেজ ম্যাচে অমন অ-বিবেচক, অনভিজ্ঞের মত শট খেলতে গিয়ে ২ বলে শূণ্য রানে ফেরা- সমর্থনটা সংশয়ে পড়ে গেছে।

x

Check Also

পিএসজির হয়ে মাঠে নামার আগে কাঁদলেন নেইমার

দে পাঁসে তুলুজের বিপক্ষে ম্যাচ। সতীর্থদের সঙ্গে দাঁড়ালেন নেইমার। দলীয় সঙ্গীত গাইলেন। তখনই নেইমারকে দেখা ...