এতিমদের পাশে উচ্চবিত্তদের দাঁড়ানো উচিৎ

দরিদ্র-দুস্থ ও এতিম জনগোষ্ঠী এদেশেরই নাগরিক। তাঁদের জীবন মান উন্নত করা রাষ্ট্রের যেমন দ্বায়িত্ব তেমনি সমাজের বিত্তবানরাও এই দ্বায়িত্ব এড়িয়ে যাবার কোনও সুযোগ নেই। তাই অবহেলিত জনগোষ্ঠীর পাশে সরকারের পাশাপাশি আমাদের সকলকেই এগিয়ে আসা উচিৎ।

শনিবার (১৭ জুন) সন্ধ্যায় রাজধানী মতিঝিল মসজিদ ওয়াকফ এষ্টেট-এ এক ব্যবসায়িক সমিতির আয়োজনে এতিমদের সাথে ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম (বোয়াফ) সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময় এমন মন্তব্য করেন।

তিঁনি বলেন, উন্নয়নের সড়কে চলতে থাকা বাংলাদেশের তৃণমূল পর্যায়ে জনগোষ্ঠীর ন্যায্য অধিকার আমরা আজও পুরোপুরি বাস্তবায়ন করতে পারিনি। ডিজিটাল পদ্ধতি বা তার সুফল দেশের শহর অঞ্চলের হলেও প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষগুলো আজও ডিজিটাল পদ্ধতির ‘ডি’ পর্যন্ত জানে না। আমরা তার সুফল পৌছাতে পারিনি বলেই তৃণমূল অঞ্চলের জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নত করতে পারিনি।

কবীর চৌধুরী তন্ময় আরও বলেন, সরকার যদি রাষ্ট্রযন্ত্রের কিছু কর্মকর্তা কর্মচারীদের দূর্ণীতি বন্ধ করতে পারতো, ৭৫ হাজার কোটির টাকার মতন সাগর চুরির ঘটনায় বিদেশে টাকা পাচার রোধ করা সম্ভব হতো তাহলে আজকে এতিমদের উদ্দেশ্যে ইফতার অনুষ্ঠানের প্রয়োজন হতো না। রাস্তাঘাট বা দেশের অবকাঠামোর উন্নয়নের আগে এই এতিম বা অবহেলিত জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়ন করা সরকারের সাথে-সাথে সমাজের প্রত্যেকটি বিত্তমান মানুষের দ্বায়িত্ব ও কর্তব্য।

ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠানে মতিঝিল মসজিদ ওয়াকফ এষ্টেট-এর সভাপতি কাজী মাসুদ আহমেদের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন অত্র ওয়াডের সাবেক কাউন্সিলর ময়নুল ইসলাম ময়না, মতিঝিল মসজিদ ওয়াকফ এষ্টেটের ঈমাম মাওলানা মো. হাসেম, ব্যবসায়িক সমিতির সভাপতি হাবিবুর রহমান হবিসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

x

Check Also

লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগাং খুলশীর উদ্যোগে গরিব ও দুস্থদের মাঝে ঈদবস্ত্র বিতরণ

লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগাং খুলশীর উদ্যোগে জুবিলি রোড মার্চেন্টস এসোসিয়েশন এর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় গত ২২ ...