বন্দর থানা বৃত্তির পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বক্তারা সৃজনশীল প্রতিভা বিকাশে হালিম লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা ভূমিকা রাখছে

শহীদ হালিম-লিয়াকত স্মৃতি সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণ আওতাধীন বন্দর জোনের ব্যবস্থাপনায় যুল-ইয়াক্বিন ছাত্র কল্যাণ পরিষদের সার্বিক সহযোগিতায় শহীদ হালিম-লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা’১৬ সনদ ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অদ্য ১৯ মে, বিকাল ৩ টায় হালিশহর মাদ্রাসা-এ তৈয়্যবিয়া ইসলামিয়া সুন্নিয়া ফাযিল মাদ্রাসা অডিটরিয়ামে হাফেজ মুহাম্মদ রবিউল হাসান রুবেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শহীদ হালিম-লিয়াকত স্মৃতি সংসদ চট্টগ্রাম মহানগরীর উপদেষ্টা আলহাজ্ব মাওলানা মুহাম্মদ নুরুল কবির রেজভী। প্রধান আলোচক ছিলেন শহীদ হালিম-লিয়াকত স্মৃতি সংসদের কেন্দ্রীয় পরিচালক জি.এম শাহাদত হোসাইন মানিক। উদ্বোধক ছিলেন আঞ্জুমানে রজভীয়া নুরীয়া বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগরের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মুহাম্মদ নাদিমুল হক রানা। মুহাম্মদ শওকতুল করিমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মাওলানা মুহাম্মদ ইউনুস তৈয়্যবী যুক্তিবাদী, হাজী মুহাম্মদ হাসান, মুহাম্মদ রিয়াজ হোসাইন, মুহাম্মদ গোলাম তাহের প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বলেন, বই হচ্ছে জ্ঞানের বাহন, বইয়ের মাধ্যমে জ্ঞান অর্জনের সুযোগ ঘটে। শিক্ষার্থীদের জ্ঞানচুক্ষু উম্মেষ ঘটাতে এবং জ্ঞানভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠায় সৃজনশীল কর্মসূচি সর্বত্র প্রসারিত করতে হবে। নতুন প্রজন্ম আজ প্রযুক্তির অপব্যবহারের শিকার। তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির অপব্যবহার থেকে বর্তমান প্রজন্মকে বাঁচাতে সৃজনশীল কর্মকাণ্ড প্রসারিত করার ওপর বক্তারা গুরুত্বারোপ করেন। বক্তারা আরও বলেন, মাদক, অপসংস্কৃতি ও অশালিনতায় ডুবিয়ে দিয়ে আগামী প্রজন্মকে অযোগ্য এবং অনৈতিকতার জোয়ারে ভাসিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করতেছে দেশ বিরোধী চক্র। তবুও নতুন প্রজন্ম আমাদের স্বপ্ন দেখায়। শত হতাশার মাঝেও পাবলিক পরীক্ষাসমূহে মেধাবীদের চমৎকার ফলাফলে আমাদের আশান্বিত করে। ভরসা করতে চেষ্টা করি এসব মেধাবীর দেশকে বিপদগ্রস্ত হতে দিবে না। কিন্তু আমরা হতাশ হই, পরীক্ষায় চমৎকার ফলাফল করা এসব শিক্ষার্থীরা দেশের কৃষ্টি, সভ্যতা, সংস্কৃতি, ইতিহাস, ঐতিহ্য সম্পর্কে জানে না। বর্তমান বিশ্বে এগিয়ে যেতে হলে শিক্ষার্থীদের এসব বিষয়ের পাশিপাশি জাতীয়-আন্তর্জাতিক প্রভৃতি বিষয়ে অবগত থাকতে হবে। তাদের অন্তরের সুপ্ত মেধাকে জাগ্রত করতে হবে। জ্ঞান প্রতিযোগিতা, বিতর্ক সভা, বৃত্তি পরীক্ষার আয়োজনসহ সৃজনশীল প্রতিযোগিতা শিক্ষার্থীদের সুপ্ত মেধা বিকশিত করে। সৃজনশীল প্রতিভা বিকাশে হালিম লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা অগ্রণী ভূমিকা রাখছে। তাই শিক্ষার্থীদের এই মেধা বৃত্তিতে বেশি বেশি অংশগ্রহণ করা উচিত।
বৃত্তি পরিচালনা কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মুহাম্মদ জহিরুল উদ্দিন, মুহাম্মদ শিহাব উদ্দিন, মুহাম্মদ জসিম উদ্দিন, মুহাম্মদ আবু জাবের, মুহাম্মদ কায়েদ আজম, মুহাম্মদ আব্দুর রহমান, ইয়ার আহমদ জামশেদ, মুহাম্মদ আব্দুল আজিজ, মুহাম্মদ আব্দুল হালিম, মুহাম্মদ শওকতুল করিম প্রমুখ।

x

Check Also

সম্মিলিত কর আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ মিছিল

সম্মিলিত কর আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের উগ্যোগে আইনজীবী ভবনের সম্মুখে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির ...