ঝিনাইদহে জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের অভিযান সমাপ্ত

জেলার সদর উপজেলার ধানহাড়িয়া-চুয়াডাঙ্গা গ্রামে জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের অভিজান সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে।
ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ ক্যাম্পে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আজ র‌্যাবের আইন ও মিডিয়া উইং এর পরিচালক মুফতি মাহামুদ খান বলেন, ‘চুয়াডাঙ্গা গ্রামে জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের অভিযান সমাপ্ত’।
তিনি বলেন, দুই দিনের অভিযান সফলভাবে পরিচালনা করা হয়েছে। ঢাকা থেকে বোম ডিস্পোজাল ইউনিটের সদস্যরা ২ টি সুইসাইডাল ভেস্ট ও ১টি মাইন নিস্ক্রীয় করেছে।
তিনি বলেন, এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থকবে।
র‌্যাবের পরিচালক অপারেশন লেফটেন্যান্ট কর্নেল মাহমুদ, র‌্যাব ৬ এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) খন্দকার রফিকুল ইসলাম, ঝিনাইদহ র‌্যাব কোম্পানী কমান্ডান মেজর মুনির আহমেদ প্রমূখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সোমবার রাতে চুয়াডাঙ্গা গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে প্রান্ত (১৭) ও আত্তাব উদ্দিনের ছেলে মো. সেলিমকে (৩৫) তাদের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা নব্য জেএমবি’র সদস্য।
সেলিম গত ৭মে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার বজরাপুরে অ্যান্টিটেররিজম ইউনিটের পরিচালিত অভিযানে নিহত তুহিনের ভাই। প্রান্ত নিহত তুহিনের চাচাত ভাই।
প্রান্ত ও সেলিমের স্বিকারোক্তি মোতাবেক মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত তাদের বাড়ি ও আশেপাশের এলাকায় তল্লাশি চালায় র‌্যাব। এই অভিজানে ৫টি বোমা, ২টি সুইসাইডাল ভেষ্ট, ১৮৬টি পিভিসি সার্কিট বোর্ড, ১৮টি নিওজেল, ১টি এন্টি মাইন ও বোমা তৈরির রাসায়নিক ভর্তি ৪টি ড্রাম উদ্ধার করা হয়।
রাতে অভিযান বন্ধ থাকার পর আজ বুধবার সকাল থেকে র‌্যাবের বোম ডিস্পোজাল ইউনিট চুয়াডাঙ্গা গ্রামের জঙ্গি আস্তানায় ও আশেপাসে তল্লাশি চালায়।
গত ২২ এপ্রিল পার্শ্ববর্তী পোড়াহাটি গ্রামে ও ৭ ও ৮ মে মহেশপুরের বজরাপুর এবং ঝিনাইদহ সদরের লেবুতলা গ্রামে অ্যান্টিটেররিজম ইউনিট পৃথক অভিজান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র, গুলি, বোমা, বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করে। ওই সময় দুই নব্য জেএমবি সদস্য নিহত হয়।

x

Check Also

১২ দিনব্যাপী ১৫ অক্টোবর থেকে চিটাগাং লাইফ স্টাইল এক্সপোজিশান-২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী ১৫ অক্টোবর থেকে চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর উদ্যোগে ...