পাহাড়ের শান্তি সম্প্রীতি বজায় রাখতে আলীকদমে মুরুং নেতাদের সংবাদ সম্মেলন

বান্দরবান প্রতিনিধি :পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) যদি পাহাড়ের শান্তি বিনষ্ট করে তবে মুরুংরা ১৯৮৪-৮৫ সালের মতো সংগঠিত হয়ে রুখে দাড়াবে।লামা-আলীকদমের শান্তিপূর্ণ এলাকাকে অশান্ত করবেন না। জেএসএস সন্ত্রাসীদের হুমকীতে আজ নিরাপত্তাহীন দুর্গমের সাধারণ মুরুং জনগোষ্ঠী।বুধবার আলীকদম প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে জেএসএস কে অভিযুক্ত করে এ হুশিয়ারি দেন লামা-আলীকদমের মুরুং কল্যাণ সংসদের নেতারা।সংবাদ সম্মেলনে আলীকদম মুরুং কল্যাণ সংসদের সভাপতি মেনদন মুরুং স্বাক্ষরিত লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইয়োংলক মুরুং।এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুরুকপাতা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ক্রাতপুং ¤্রাে,মেনরুম মুরুং কার্বারি,মেনওয়াই ম্রো,খামলাই ¤্রাে ও মারান মুরুংসহ অর্ধশতাধিক মুরুং জনসাধারণ।সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হয়ে একাত্মতা পোষণ করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সমর রঞ্জন বড়ুয়া ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ফরিদ আহাম্মদ।সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, জেএসএস এর অস্ত্রধারী কতিপয় সন্ত্রাসী লামা ও আলীকদম উপজেলার পাহাড়ি পল্লীতে অপহরণ,খুন,চাঁদাবাজি করে অশান্ত পরিবেশ সৃষ্টি করছে।এছাড়াও সরকারি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে চাঁদার দাবীতে বাধা দিচ্ছে।মুরুং নেতাদের দাবী,জেএসএস এর সশস্ত্র অংশ শান্তিবাহিনীর সদস্যরা পার্বত্য চট্টগ্রামকে অশান্ত করছে। এরা জনসাধারণ ও সরকারকে চাপে রেখে অসাংবিধানিক দাবি আদায়ের অপচেষ্টায় লিপ্ত।১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর শান্তিচুক্তি সম্পাদনের পরও কথিত দাবী আদায়ের লক্ষ্যে তারা আবারো অস্ত্র হাতে নিয়ে পাহাড়ি পল্লীতে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে,এতে জনভোগান্তির পাশাপাশি সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা পাহাড়ের শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখতে সকল সন্ত্রাসীদের বিরদ্বে রুখে দাড়ানোর আহবান জানান ।

x

Check Also

ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ)হচ্ছে মুসলিম মিল্লাতের ঐক্যের প্রতীক,সূফি মিজান

হোসেন বাবলা:১৯নভেম্বর বন্দর নগরীতে নগর গাউছিয়া কমিটির উদ্যোগে পবিত্র মাহে রবিউল আউয়াল উপলক্ষে স্বাগত জানিয়ে ...