প্রধান বিচারপতিকে গ্রেফতারে হাইকোর্টের বিচারকের নির্দেশ

ভারতের প্রধান বিচারপতি জে এস খেহরসহ দেশটির সুপ্রিমকোর্টের সাত বিচারপতির বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সি এস কারনান। পাশাপাশি বিচারপতিদের গ্রেফতারে দিল্লির পুলিশ প্রধানকেও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

নিদের্শনায় কারনান ওই সাত বিচারপতিকে মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞদের কাছে নিয়ে যাওয়ার জন্যও বলেছেন। এর আগে সোমবার (১ মে) বিচারপতি সি এস কারনানের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পুলিশের ডিজিকে নির্দেশনা দেয় সাত বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত ভারতের সুপ্রিমকোর্টের একটি বেঞ্চ। এতেই ওই সাতজনের ওপর চটেছেন কলকাতা হাইকোর্টের এই বিচারক।

ওইদিনই এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘চিন্তাভাবনা না করেই হাস্যকর এই নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতিরা। আসলে বিচারপতিরা সিডিউল কাস্ট অ্যান্ড সিডিউল ট্রাইব (প্রিভেনশন অব) অ্যাট্রোসিটি অ্যাক্ট থেকে বাঁচার জন্যই এই নির্দেশ দিয়েছেন। কোনো অস্বাভাবিক আচরণ ছাড়া আমি বলছি, ওই বিচারপতিদের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার দরকার আছে।’

তার সামনে হাজিরা দেয়ার জন্য ওই সাত বিচারপতিকে ১ মে পর্যন্ত সময় দিয়েছিলেন কারনান। কিন্তু তারা হাজিরা না দেয়ায় এই পরোয়ানা জারি করেছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে বিচারপতি কারনান বলেন, তিনি সুস্থ ও স্বাভাবিক আছেন। তার মতো একজন দলিত বিচারপতিকে ফের অপমান করা হল।

প্রসঙ্গত, সোমবার কারনানের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার নির্দেশ দেয়ার পর বৃহস্পতিবার তার মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য একটি মেডিক্যাল বোর্ডও গঠন করার নির্দেশ দেয় ভারতের শীর্ষ আদালত। তবে তিনি নিজের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাবেন না বলে পালটা হুমকি দিয়েছেন বিচারপতি কারনান।

ভারতের প্রধান বিচারপতি জে এস খেহর
ভারতের প্রধান বিচারপতি জে এস খেহর

মঙ্গলবার (২ মে) ভারতীয় সুপ্রিমকোর্টের অ্যাটর্নি জেনারেল মুকুল রোহতগি বলেন, তিনি জানেন না কারনান নিজের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাবেন কি না।

গত ২৩ জানুয়ারি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ‘বিচার ব্যবস্থায় ব্যাপক দুর্নীতি’ নিয়ে একটি চিঠি লেখেন। এতে ২০ জন ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ বিচারপতির একটি ‘প্রাথমিক তালিকা’ দেন তিনি। তার অভিযোগ, ওই ২০ বিচারপতিকে রক্ষার চেষ্টা করছে সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতিসহ বাকি ছয়জন। এরপর থেকেই শুরু হয় ভারতীয় বিচারপতিদের নির্দেশনা ও পাল্টা নির্দেশনার এই লড়াই।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া, দ্য হিন্দু

x

Check Also

ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ)হচ্ছে মুসলিম মিল্লাতের ঐক্যের প্রতীক,সূফি মিজান

হোসেন বাবলা:১৯নভেম্বর বন্দর নগরীতে নগর গাউছিয়া কমিটির উদ্যোগে পবিত্র মাহে রবিউল আউয়াল উপলক্ষে স্বাগত জানিয়ে ...