মহান মে দিবসে বিশাল শ্রমিক র‌্যালী ও সমাবেশে বক্তারা


চালকদের কর্ম ও জীবন জীবিকার ন্যায়সঙ্গত
১২ দফা দাবী বাস্তবায়ন করতে হবে
মহান মে দিবস উপলক্ষ্যে চট্টগ্রাম অটোরিকশা ও অটোটেম্পু শ্রমিক ইউনিয়নের এক সমাবেশ গতকাল ১লা মে বিকাল ৩টায় আন্দরকিল্লা চত্বরে বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা ও ইউনিয়নের সভাপতি হাজী কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক শ্রমিক নেতা হারুনুর রশীদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউনিয়নের সহ সভাপতি বিপ্লব,যুগ্ম সম্পাদক মো: সোলায়মান, সহকারী সেক্রেটারী ওমর ফারুক, শহিদুল ইসলাম, মোহাম্মদ ফারুক হোসেন। বক্তব্য রাখেন শ্রমিক নেতা অর্থ সম্পাদক জসিম উদ্দিন, প্রচার সম্পাদক আজিজুল হক, আবু হাওলাদার, সিরাজুল ইসলাম, পেয়ার মোহাম্মদ ও পটিয়া উপজেলা সেক্রেটারী শফিউল আলম, ভুজপুর থানা শ্রমিক নেতা শাহ আলম প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালকরা প্রতিদিন কর্মক্ষেত্রে নানা সমস্যা ও অসহনীয় জুলুম নির্যাতনের স্বীকার হলেও দেখাও কেউ নেই। একদিকে মালিকের অতিরিক্ত জমা অন্যদিকে পুলিশী নির্যাতন সহ্য করে চালকদেরকে জীবন জীবিকার জন্য যুদ্ধ করে যেতে হচ্ছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, দৈনিক মালিকের জমা ৬০০টাকা পূর্নবহাল করতে হবে। নিবন্ধনের আশায় ইউনিয়নের যে সব সদস্য গাড়ী ক্রয় করেছে সে সব গাড়ীসহ ৫ হাজার গাড়ীর রেজিষ্ট্রেশন দেওয়ার জন্য বিআরটিএ’র প্রতি অনুরোধ জানানো হয়। বক্তারা সেতু মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মতে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন সম্প্রতি ৪হাজার গাড়ী রেজিষ্ট্রেশনের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তার জন্য ধন্যবাদ জানান এবং কালবিলম্ব না করে সেই গাড়ী গুলো রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করার কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের আহবান জানান। বক্তারা আরো বলেন, লাইসেন্স নবায়নের হয়রানী বন্ধ করা, পার্কিং ব্যবস্থা নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত নো পার্কিং মামলা দিয়ে হয়রানী বন্ধ করা, পুলিশের ডিউটির নামে যখন তখন গাড়ী রিকুইজিশন বন্ধ এবং শাহ আমানত সেতু, তৈলাদ্বীপ সেতু ও কালুরঘাট সেতুর টোল অর্ধেক করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান।
প্রধান বক্তা হারুনুর রশীদ বলেন, অটোরিকশা চালকদের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে অতীতে যারা চালকদের উপর নির্যাতন, জুলুম করেছে তাদের রেহায় দেয়া হবে না। কথায় কথায় মালিকরা ছাবি কেড়ে নেয়া বন্ধ করতে হবে। হাইওয়ে পুলিশের অযথা হয়রানী বন্ধ করতে হবে। সরকারী দলের নাম ব্যবহার করে যারা চালকদের কাছ থেকে চাঁদা দাবী করে চালকদের নানা প্রকার নির্যাতন করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনী প্রদক্ষপ গ্রহণ করতে হবে। তিনি আরো বলেন, মানসম্মত মিটার দিয়ে আমাদেরকে যাত্রী সেবা নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়াও এসটি মামলার জরিমানা ৩০০টাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে।
সভাপতির বক্তব্যে হাজী কামাল উদ্দিন বলেন, আমাদের ১২দফা দাবী অত্যন্ত ন্যায় সঙ্গত। শ্রমিকদের রুটি রুজির জন্য এ ১২দফা বাস্তবায়ন সময়ের দাবী। তিনি বলেন, আমরা আন্দোলন সংগ্রাম করতে চায় না। আমরা পরিবার পরিজনসহ অধিকার নিয়ে বাঁচতে চায়। অনতিবিলম্বে আমাদের দাবী সমূহ পূরণ করে শ্রমজীবি মানুষের অধিকার প্রতিষ্টার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান। সমাবেশ শেষে এক বিশাল র‌্যালী আন্দরকিল্লা-বক্সিরহাট-লালদীঘি-সিনেমাপ্যালেস হয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়।

x

Check Also

সংবাদ সম্মেলনে তথ্যঃঅরবিস ফ্লাইং আই হসপিটাল’ এখন চট্টগ্রাম বিমান বন্দরে

হোসেন বাবলা:১৭নভেম্বর বিশ্বের একমাত্র অরবিস ফ্লাইং আই হসপিটাল’ এখন চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। বৃহস্পতিবার ...