রাঙ্গামাটিতে পর্যটন উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনার


পার্বত্য এলাকায় সুষ্ট পরিবেশ ও পর্যাপ্ত পর্যটন সুবিধা না
থাকায় বিদেশী পর্যটকদের আগমন নেই: পার্বত্য সচিব
পার্বত্য এলাকায় সুষ্ট পরিবেশ ও পর্যাপ্ত পর্যটন সুবিধা না থাকায় বিদেশী পর্যটকদের আগমন নেই বলে মন্তব্য করেছেন, পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা। শুধু রাস্তা-ঘাট আর হোটেল মোটেল নির্মাণ করলে হবেনা। পার্বত্য এলাকায় সামাজিক ও রাজনৈতিক স্থিতিশীল পরিবেশ গড়ে তোলা না গেলে পাহাড়ে দেশী-বিদেশী পর্যটকদের আগমন বাড়বে না বলেও উল্লেখ্য করেন তিনি।
বুধবার সকালে রাঙ্গামাটিতে পার্বত্য জেলা পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত পরিষদের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত পর্যটন উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।
সেমিনারে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস্ চেয়ারম্যান তরুন কান্তি ঘোষ, পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো.কামাল উদ্দীন তালুকদার, যুগ্ন সচিব সুদত্ত চাকমা, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, জেলা প্রশাসক মানজারুল মান্নান, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম জাকির হোসেন, আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য গৌতম চাকমা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শহিদ উল্লাহ, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী কাজী আব্দুস সামাদ, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য মুছা মাতবর, অংসুইপ্রু চৌধুরী, অমিত চাকমা রাজু, পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, পরিষদের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ’সহ পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন, পার্বত্য শান্তি চুক্তির আলোকে পর্যটন বিষয়কে জেলা পরিষদের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। তাই শান্তি চুক্তিকে পাশ কাটিয়ে পার্বত্য পর্যটনের কোন উন্নয়ন সম্ভব নয়।
সেমিনারে এআইএন্ড এসোসিয়েটস লি: সহকারী প্রকৌশলী মশিউর ইসলাম প্রজেক্টরের মাধ্যমে রাঙ্গামাটির পর্যটন উন্নয়নে প্রজেক্টরের মাধ্যমে প¬্যানগুলো তুলে ধরেন। তার মধ্যে রয়েছে- রাঙ্গামাটি শহরের ফিসারী এলাকায় আধুনিক মানের ফুটব্রীজ, কাপ্তাই হ্রদের ভাসমান টিলাগুলোতে রেস্টুরেন্ট ও রেস্ট হাউস নির্মাণ, পর্যটন মোটেল এলাকায় বিনোদন স্পট, শহরের জির পয়েন্টে লাভ পয়েন্টে স্পট, বালুখালী ইউনিয়নে হর্টিকালচার কমিউনিটি সেন্টার, শহীদ মিনার এলাকায় গেস্ট হাউস, সুবলং ঝর্ণা উন্নয়ন, নির্বান নগর বৌদ্ধ বিহারের উন্নয়ন, শহরের প্রবেশ মুখ মানিকছড়ি এলাকায় পর্যবেক্ষণ টাওয়ার, আসামবস্তী-কাপ্তাই সড়কে গ্যালারী স্টের ভিউ সাইট, ঘাগড়ায় ক্যাফেটরিয়া, লুসাই পাহাড়ে গেস্ট হাউস এবং কাপ্তাই নতুন বাজার এলাকায় থ্রী স্টার হোটেল নির্মানের পরিকল্পনা কথা উপস্থাপন করেন তিনি।
সেমিনারে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের অর্থায়নে ৬’শ কোটি টাকার পর্যটন উন্নয়ন প্রকল্পের একটি ম্যাষ্টার প্ল্যান তৈরি হয়েছে বলে জানানো হয়।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*