বন্দুকের বিনিময়ে নয়, আস্থা অর্জনের মাধমেই কঠিন সমস্যা সমাধান করা যায় : প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর

বান্দরবান প্রতিনিধি : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন বন্দুকের বিনিময়ে নয়, গুলির বিনিময়ে নয়, ভালবাসা দিয়ে আর দু:খের কথা শুনে সমাধান করার মাধ্যমে আন্তরিকতার প্রকাশ করার মাধ্যমে আস্থা আসে, আর সেই আস্থার মাধ্যমে আমরা অনেক কঠিন সমস্যা সমাধান করতে পারি যার সবচেয়ে বড় উদাহরণ ১৯৯৭ সালের ২রা ডিসেম্বরে শান্তি চুক্তি । আর এই শান্তি চুক্তির কারণে পার্বত্য অঞ্চলে এত উন্নয়ন ।’’বৃহস্পতিবার দুপুরে রোয়াংছড়ি উপজেলার আলেক্ষ্যং ইউনিয়নের কচ্ছপতলি বাজারে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি এক জনসভায় এসব কথা বলেন ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলার আলেক্ষ্যং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মংচউ মার্মা । সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আনন্দ সেন তঞ্চঙ্গ্যা । এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বাণ চাকমা, পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা শহীদুল আলম, জেলা পরিষদ সদস্য লক্ষী পদ দাস, কাঞ্চন জয় তঞ্চঙ্গ্যা, ¤্রাসা খেয়াং, রোয়াংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দাউদ হোসেন চৌধুরী, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক হ্লা থোয়াই হ্র,আলেক্ষ্যং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবান ইউনিটের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: আব্দুল আজিজ, পার্বত্য জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) সাইদুল্লাহ মিয়া, উপ-সহকারী প্রকৌশলী থোয়াই চ মং মার্মা সহ আরো অনেকে ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর আরো বলেন, শান্তি চুক্তির অনেক ধারাই বাস্তবায়ন হয়েছে , আর যা বাকি আছে তা ও অচিরেই বাস্তবায়ন করা হবে ।

জনসভার আগে তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে ৩৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে রোয়াংছড়ি বৌদ্ধ বিহারে দেশনা ঘর উদ্ধোধন করেন । পরে ৩ কোটি ২ লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা ব্যয়ে লিরাগাও রাজবিলা সড়কের এক কিলোমিটার অংশে তাড়াছা খালির উপর গার্ডার ব্রীজের এবং ৫০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে আলেক্ষ্যং ইউনিয়নের কচ্ছপতলী মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের সংযোগ সড়ক সহ ডরমেটরি ও নির্মিত ছাত্রাবাস উদ্বোধন করেন ।

পাহাড়ের সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজদের উদ্দেশ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, পাহাড়ে সন্ত্রাসী কর্মকা-ের সাথে জড়িতদের কোন মতেই ছাড় দেয়া হবে না । পার্বত্য এলাকায় সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের পেলেই গোণধোলাই দেয়া হবে বলে এসময় তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন ।

এছাড়াও তিনি বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের অর্থায়নে ৯০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে কচ্ছপতলী বৌদ্ধ বিহার এবং ১৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে কচ্ছপতলী বাজার শেডের উদ্বোধন করেন ।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

x

Check Also

আষাঢ়ের রোদেলা সকালের হালকা উত্তাপে চট্টগ্রামের প্রধান ঈদগাহ জামাত জমিয়তুল ফালাহ-তে লাখো মুসল্লির পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়

আষাঢ়ের রোদেলা সকাল।  হালকা গরম।  স্বস্তিদায়ক আবহাওয়ার মধ্যে যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য আর বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে ...