বাংলাদেশ ও ভারত টেস্ট হচ্ছে ভুল ভেন্যুতে

ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ভারতের মাটিতে টেস্ট খেলতে গেছে বাংলাদেশ। সেই সুবাদে দুই দেশের মধ্যে এই টেস্টটি ঐতিহাসিকই বটে। তবে ম্যাচটির ভেন্যু নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিখ্যাত ক্রিকেট লেখক বোরিয়া মজুমদার। তিনি মনে করেন ভেন্যু নির্বাচনে ভুল করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তার মতে, ম্যাচটি হায়দ্রাবাদে না হয়ে কলকাতায় হলে বানিজ্যিকভাবে লাভবান হতো ভারত। ভারতীয় গণমাধ্যম ইকোনমিক টাইমসের এক কলামে এমনটাই মন্তব্য করেছেন তিনি।

২০০০ সালের জুনে টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর দেশের মাটিতে অভিষেক টেস্টটা ভারতের সঙ্গেই খেলেছিল বাংলাদেশ। এরপর দীর্ঘ ১৭ বছর পর নিজেদের দেশে বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে ভারত। প্রসঙ্গত, টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর এ পর্যন্ত বাংলাদেশের মাটিতে ২০০৪, ২০০৭, ২০১০ ও ২০১৫ সালে মোট ৪ বার টেস্ট খেলেছে ভারত। যে বিষয়টি অবাক করেছে এই ক্রিকেট লেখকের। যেটি নিয়ে কলামটিতে প্রশ্নও তুলেছেন বোরিয়া মজুমদার। তিনি জানতে চেয়েছেন খুব শক্তিশালী দল না হওয়ার কারণেই কি এত দিন ভারত বাংলাদেশকে নিজেদের মাটিতে ডাকেনি?

তবে, তিনি বিশ্বাস করেন, এই সময়ে এসে সেই অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ এ টেস্ট সিরিজ ড্র করে বাংলাদেশ সেটি প্রমাণ করেছে। এছাড়া সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়েলিংটন টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৬০০ রানের কাছাকাছি করার ব্যাপারটিও উদাহরণ হিসেবে এনেছেন তিনি। তাঁর মতে, ফর্মের বিচারে এই মুহূর্তে ওয়েস্ট ইন্ডিজের চেয়েও ভালো দল বাংলাদেশ।

এছাড়া বোরিয়া মনে করেন, ব্যবসায়িক সফলতার কথা মাথায় রেখে বাংলাদেশের সঙ্গে ম্যাচের জন্য ভেন্যু হিসেবেও ভারত ভুল মাঠকে বেছে নিয়েছে। এই টেস্টের জন্য বিসিসিআই কলকাতাকে বেছে নিতে পারতো বলেও মত দিয়েছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে তিনি লিখেছেন, ‘এখানেও বিসিসিআই একটা সহজ বুদ্ধি কাজে লাগায়নি মনে হচ্ছে। বাংলাদেশের জন্য হায়দরাবাদে খেলা আর কলকাতায় খেলা এক নয়। এই ম্যাচ ইডেন গার্ডেনে হলে ঢাকা-চট্টগ্রাম থেকে কয়েক হাজার দর্শক চলে আসত ম্যাচ দেখতে। এমনিতেও টেস্টে যেখানে দর্শক হয় না এখন, তখন বোর্ড তার আবর্তন নীতির ব্যতিক্রম করতেই পারত দুই বাংলার সমর্থকদের কথা ভেবে।’

এদিকে বাংলাদেশের ব্যাপারে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের দৃষ্টিভঙ্গির যে খুব পরিবর্তন হয়েছে, সেটি বিশ্বাস করেন না বোরিয়া মজুমদার। এত ঢাকঢোল পিটিয়ে মাত্র একটি টেস্ট আয়োজনের ব্যাপারটি উদাহরণ হিসেবে দিয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে দ্বিতীয় ও তৃতীয় টেস্টের মাঝখানে আট দিনের ব্যবধান না রেখে বাংলাদেশের বিপক্ষে একটি টেস্ট বেশি খেলতে পারত ভারত।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘একটা মাত্র টেস্ট খেলার আসলে কোনো মানে হয় না। আবার কবে ভারত বাংলাদেশকে খেলতে ডাকবে, সেটই বা কে জানে!’

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

x

Check Also

প্রস্তুতি ম্যাচ না খেলতে পারায় হতাশ অস্ট্রেলিয়া

দুইটি টেস্ট খেলতে বাংলাদেশ সফরে এসেছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। মূল সিরিজের আগে দুই দিনের একটি ...