পতেঙ্গা-ইপিজেডের মানুষ যানযটে জিম্মি” বিকল্প সড়ক গুলো দ্রুত খুলে দিয়ে যানযট দূর্ভোগ কমান

বাবুল হোসেন বাবলা:চট্রগ্রাম)০৬/০২/২০১৭ইং
পতেঙ্গা-হালিশহর ও ইপিজেডের লক্ষ লক্ষ মানুষ দীর্ঘদিন যাবত যানযটে জিম্মি,অনেকটাই এখন ছিটমহলবাসীর মত বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে বলে অভিমত প্রকাশ করেন নাগরিক পরিষদের আহবায়ক এডভোকেট জানে আলম । তিনি আরো দূঃখ প্রকাশ করেন যে, ৫/১০মিনিটের পথ অতিক্রম করতে দেড়-দুই ঘন্টা সময় লাগে এবং যার ফলে উৎপাদন,ব্যবসা-বানিজ্য,শিক্ষা-চিকিৎসা সেবা,বিদেশ যাত্রা-পর্যটন ভ্রমন নাগরিক জন-জীবনে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে নিয়মিত কার্যক্রম। দিনদিন এই যট ভয়াবহ রূপে ছড়িয়ে সমস্ত এলাকার অলি-গলিতে প্রভাব পড়ছে বলে তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন।
সম্প্র্রতি (শুক্রবার )পতেঙ্গা- ইপিজেড আহবানে ভয়াবহ যানযট নিরাসনের দাবিতে সিইপিজেড মোড়ে সর্বস্তরের জনগণের অংশগ্রহণে বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে দাবি করেন যে, বিকল্প সড়ক গুলো খুলে দিয়ে বন্দর-পতেঙ্গা ও ইপিজেডের ভয়াবহ যানযট রোধ করা যায়। এছাড়া দিনের অধিকাংশ সময়ে বন্দরের ডিপোতে যাওয়া ট্রাংক-লরী, কন্টেইনার-এভিকল ভারী গাড়ীগুলো যেখানে-সেখানে পাকিং করে এবং ট্রাফিক পুলিশ অনৈতিক ভাবে গাড়ী থেকে টোল গ্রহনেই অসহনীয় যানযটের জন্য দায়ী বলে উপস্থিত জনগণ দাবি করেবলেন্।
নাগরিক পরিষদের অন্যান্য বক্তারা বলেন,বন্দর-চসিক ,সিডিএ,বেপজা,ট্রাফিক বিভাগ সহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের সমন্বিত উদ্যোগে ট্রাফিক সিস্টেম পরিবর্তন এনে যানযট নিরাসন কিছুটা দূরীকরণ সম্ভব বলে মন্তব্য করেন। তারা আরো বলেন, এই মানববন্ধনে নাগরিক পরিষদের পক্ষ থেকে প্রশাসনের দৃষ্টিকার্ষন করে যানযট নিরাসনে কিছু প্রস্তাব তুলে ধরেন, পতেঙ্গা এলাকা থেকে ডিপো সরানো,নৌবাহিনীর দখল কৃত সড়কটি খুলে দেয়া,সিইপিজেড-রেল লাইন দিয়ে বিকল্প রোড খুলে দেয়া,ফিডার রোড দ্রুত চাল করন,রাস্তার পাশে অবৈধ ডাস্টবিন সরানোর জোর দাবি জানান। এতে সংহতি জানান পপি চাকমা,মোঃ ইকবাল হোসেন,মোঃ ফসিউল আলম,রফিকুল হাসান,মুজিবুলএডঃ বরকত উল্লাহ খান,সাইফুররহমান,শাকিল হারুণ ,মুনসুর আলী, কে এম জামাল হোসাইন এবং পরিবেশ সংরক্ষণ কমিটির বাহার উদ্দিন ।নাগরিক পরিষদ প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানান যে,শীঘ্রই এই জন দাবি মেনে না নিলে আরো বৃহত্তর কর্মসূচি দিবেন বলে আহবায়ক এডভোকেট জানে আলম ॥

এদিকে এই তীব্র যানযট কে জানত চাইলে,বন্দর-পতেঙ্গা রোডের ট্রাফিক নিয়ন্ত্রক (টিআই) পুলিশ এম.এ কাশেম জানান, আমরা অল্প সংখ্যক লোক নিয়ে রোড ন্য়িন্ত্রন নিরালস কাজ করছি,তবে চট্রগ্রাম বন্দরের অস্বভাবিক গাড়ী,ট্রেংক-লরী,কভারভ্যান যত্র-তত্র চালিয়ে বেশ কিছু সময়ে সড়কে যট লেগে থাকে,বিকল্প সড়ক ব্যবস্থা চালু হলে সেই সমস্যা লাঘব হবে।
স্থানীয় বাসিন্দা নিউমুরিং(মোঃহারুন রশিদ)ও এম .এ তাহের বলেন,বহু বছর ধরে নিউমুরিং হয়ে পতেঙ্গা থেকে শহরে যাওয়ার সড়কটি নৌবাহিনী কর্তৃক বন্ধ থাকায় এদিকের যানযট অনেকাংশে বেড়ে দূর্বিষ হয়ে নাগরিক জীবন। সকালে প্রাত ভ্রমন ও বিকেল জগিং করার সময় যেন,যটেযটে চঠে উঠে মানষিক অশান্তি। এর থেকে পরিত্রাণ পাবার জন্য দ্রুত বিকল্প সড়ক গুলো খুলে দিলেই কিছুটা দুরী হবেই।

ইপিজেডের ভয়াবহ যানযট নিরাসনে,সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির ও পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার গত কয়েক দিন আগে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সাথে নগর ভবনে জরুরী সভায় বলেন, পুরোতন ও রেজিংবিহীন গাড়ী না চালানোর জন্য এবং জেলার গাড়ী জেলা আর মেট্রোর গাড়ী মেট্রোতেই চলতে ট্রাফিক বিভাগ কে জোর নিদের্শ দেন।এছাড়া সড়কের পাশে অবৈধ দোকান পাট/ফুটপাতে হকার উচ্চেদ চলমান রাখতে পরিচ্ছন্ন বিভাগ আদেশ দেন।
সরড় ও জনপদ বিভাগের কর্মকতার্ শহিদুল আলম বলেন, অসহনীয় যানযটের জন্য বন্দর-চসিক ,সিডিএ,বেপজা,ট্রাফিক বিভাগ সহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের সমন্বিত উদ্যোগেই দ্রুত ব্যবস্থা নিবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন্ ।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

x

Check Also

বিজয়ে জম্ম নেওয়া মহিউদ্দিন বিজয়েই চির বিদায় চট্টগ্রাম…!

মরিতে চাই না আমি সুন্দর ভুবনে, বাচিঁতে চাই সর্বদা এই চট্টলায়….., আমি অহংকারী বীর চট্টলার ...