ই-টিআইএনধারীর সংখ্যা ২৭ লাখ

দেশে এখন নিবন্ধিত করদাতা বা ই-টিআইএনধারীর (ইলেক্ট্রনিক কর শনাক্তকারী নম্বর) সংখ্যা ২৭ লাখ। গত ১ ফেব্রুয়ারি নতুন এই মাইলফলক স্পর্শ করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

এছাড়া প্রতি দিন গড়ে ছয় থেকে সাত হাজার নতুন করদাতা কর জালের আওতায় আসছে। ফলে এনবিআর আশা করছে চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছর শেষে ই-টিআইএনধারীর সংখ্যা ৩০ লাখে উন্নীত হবে।
নিবন্ধিত করদাতার সংখ্যা ২৭ লাখে উন্নীত হওয়াকে মাইলফলক হিসেবে দেখছেন এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান। তিনি বাসসকে বলেন, ৩ লাখ নতুন করদাতা খুঁজে বের করার লক্ষ্য থাকলেও চলতি অর্থবছরের প্রথম ৪ মাসে আমরা সেটা করতে সক্ষম হয়েছি।
তিনি বলেন, নতুন করদাতা খুঁজে বের করতে বছরের শুরুতে প্রত্যেক কর অঞ্চলের সংশি¬ষ্ট কর্মকর্তাদের সর্বোচ্চ মনোযোগী হওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলাম। এছাড়া নতুন করদাতা যুক্ত করতে শহরের পাশাপাশি উপজেলা পর্যায়েও কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। অনলাইনে ই-টিআইএন নেওয়াসহ নানামূখী পদক্ষেপের কারণে ই-টিআইএন নিবন্ধনধারী করদাতার সংখ্যা এভাবে দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।
তিনি বলেন,ই-টিআইএনধারীর সংখ্যা ২৭ লাখে উন্নীত হওয়ায় বোঝ যায়, জনগনের মাঝে কর-সচেতনতা তৈরি হয়েছে। এখন কর কার্যালয়গুলোকে হয়রানিমূক্ত করা হয়েছে। জনগনের মধ্য থেকে কর-ভীতি দূর হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
উল্লেখ্য, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ই-টিআইএনধারীর সংখ্যা ছিল ১২ লাখের কম। ফলে গত ৬ মাসের ব্যবধানে ই-টিআইএনধারীর সংখ্যা বেড়েছে ১৫ লাখ।

Check Also

চিটাগাং চেম্বারের ২০১৭-২০১৮ এবং ২০১৮-২০১৯ মেয়াদকালের জন্য এম. এ. লতিফ এমপি সমর্থিত প্যানেলের মাহবুবুল আলম সভাপতি, মোঃ নুরুন নেওয়াজ সেলিম সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সৈয়দ জামাল আহমেদ সহ-সভাপতি পদে পুনঃনির্বাচিত

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি‘র ২০১৭-২০১৮ এবং ২০১৮-২০১৯ মেয়াদের সভাপতি, সিনিয়র সহ-সভাপতি ও …

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply