মায়ানমারের রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণবাহী জাহাজ পাঠাল মালয়েশিয়া

মায়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য জাহাজভর্তি ত্রাণ পাঠিয়েছে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজ্জাক। নাজিব রাজ্জাক শুক্রবার এক জাহাজে জরুরি সরবরাহ এবং কয়েক টন খাদ্য পাঠান। তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের দুর্ভোগ উপেক্ষা করা যাবে না।

মায়ানমারে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর দমন-নিপীড়নে সবসময়ই সোচ্চার ছিলেন নাজিব। তিনি মায়ানমার সরকারকে রোহিঙ্গাদের উপর হামলা বন্ধের আহবানও জানান। তবে অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের ওপর দমনপীড়নের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর সহিংসতার বেশির ভাগ খবরই অতিরঞ্জিত বলে মন্তব্য করেছে সরকার। তা ছাড়া, রাখাইন রাজ্যে সংঘাতও ওই রাজ্যের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে সরকার অভিহিত করেছে।

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী কুয়ালালামপুরে এক বক্তৃতায় বলেন, ‘এটা একটা ঐতিহাসিক মুহূর্ত। মায়ানমারের রোহিঙ্গাদের দুঃখ-দূর্দশা যে উপেক্ষা করা যাবে না তার বৃহৎ প্রচেষ্টা এটি। মায়ানমারে ধর্ষিত হওয়া বোন, হত্যার শিকার হওয়া ভাই কিংবা জীবন্ত পুড়ে যাওয়া ব্যক্তির ব্যথা শুনতে পাচ্ছি।’ রোহিঙ্গাদের দুর্দশাকে মালয়েশিয়া সরকার আমলে নেবে এবং রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য কাজেরও ব্যবস্থা করবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

গত বছর ৯ অক্টোবর মিয়ানমারের পুলিশ ফাঁড়িতে হামলায় নয় পুলিশ সদস্য নিহত হওয়ার পর থেকে রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর চরম নিপীড়ন শুরু করে সেনাবাহিনী। সে সময় অন্তত ৮৬ জনকে হত্যা করা হয়। তা ছাড়া ৬৬ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে শরণার্থী হয়ে আশ্রয় নেয়।

জাহাজটি মায়ানমারের সর্ববহৎ শহর এবং ইয়াঙ্গুন বন্দরের দিকে রওনা হয়েছে। এটি নয় ফেব্রুয়ারি ইয়াঙ্গুনে ভিড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মালয়েশিয়ার ত্রাণবাহী জাহাজটি বিরূপ পরিস্থিতির মুখে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কারণ, মায়ানমার জাহাজটিকে রাখাইন রাজ্যের রাজধানী ‘সিটওয়ে’ অভিমুখে যাওয়ার অনুমতি দেয়নি। ত্রাণ কার্যক্রম শেষ হলে জাহাজটি তিনদিনের যাত্রায় বাংলাদেশের টেকনাফ বন্দরের দিকে রওনা হবে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

x

Check Also

জন্মদিনে ‍‍বাহুবলী‍‍কে কী উপহার দিলেন হবু স্ত্রী দেবসেনা

প্রবল পরাক্রমশালী বাহুবলী। একাই শত্রুপক্ষকে রণকৌশলে ঘায়েল করতে পারেন। এমন প্রতাপশালী মানুষটি যার জন্য কাঁধ ...