খাগড়াছড়িতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮

খাগড়াছড়ি আলুটিলা পর্যটন এলাকায় ট্রাকচাপায় নারী-শিশুসহ নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ জন। আজ শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই ৭ জনের মৃত্যু হয় ও ১৫ জন আহত হন। পরে আহতদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল ও খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিকেল ৫টার দিকে চমেকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ববি চাকমা নামে আরেকজনের মৃত্যু হয়। এছাড়া দুর্ঘটনায় ববির মা ও ছোট বোনও মারা গেছেন বলে জানা যায়।

মাটিরাঙা থানার ওসি সাহাদাত হোসেন টিটু জানান, শুক্রবার বেলা পৌণে ১১টার দিকে আলুটিলা পর্যটনকেন্দ্রের কাছে খাগড়াছড়ি-মাটিরাঙ্গা সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, মহালছড়ির চৌংড়াছড়ি এলাকার নেইম্রা মার্মা (৪০), উচনু মার্মা (১৮), চাইথোয়াই প্রু মারমা, পুলু মারমা, (১৬), উক্রাচিং মারমা, টুনটুনি মারমা, অংক্যচিং মারমা ও ববি মারমা (৩০)। এদের মধ‌্যে চাইথোয়াই প্রু মারমা ও অংক্যচিং মারমা মহালছড়ি পাইলট স্কুল থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছিল।

খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক নয়নময় ত্রিপুরা জানান, দুর্ঘটনার পরপরই তার হাসপাতালে সাতজনের লাশ নেওয়া হয়। ট্রাকচাপায় তাদের দেহের বিভিন্ন অংশ থেঁতলে গিয়েছিল। আহত অবস্থায় ১৫ জনকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর গুরুতর অবস্থায় দুজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকালে ববি মারমার মৃত‌্যু হয় বলে চট্টগ্রাম মেডিকেল ফাঁড়ি পুলিশের পরিদর্শক জহিরুল ইসলাম জানান। রনি মারমা নামে আরও একজন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, মাটিরাঙা উপজেলার আলুটিলা সাংসক নগর বৌদ্ধ বিহারের ধর্মগুরু ভদন্ত চন্দ্রমণি মহাস্থবিরের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বিভিন্ন এলাকা থেকে কয়েক হাজার মানুষ ওই এলাকায় জড়ো হয়েছিলেন। বিহারে উপরে ও নিচে মানুষের ঢল নামার পাশাপাশি সড়কের পাশে মেলার মত দোকান বসিয়েছিলেন অনেকে।

চট্টগ্রাম থেকে পাথর নিয়ে খাগড়াছড়ি যাওয়ার পথে বিহার এলাকায় এসে ট্রাকটির চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে তার গাড়ি রাস্তার পাশে এক ঝালমুড়ি বিক্রেতাকে ঘিরে তৈরি হওয়া ভিড়ের মধ‌্যে উঠে যায় এবং হতাহতের ঘটনা ঘটে বলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালেহ উদ্দীন জানান। মাটিরাঙার ওসি টিটু জানান, চালকের সহকারী মো. সেলিম ট্রাকটি চালাচ্ছিলেন। তাকে আটক করেছে পুলিশ। সুরতহাল শেষে নিহত সাতজনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে সদর থানার এসআই আব্দুল্লাহ আল মাসুদ জানিয়েছেন।

এদিকে দুর্ঘটনার খবর শুনে প্রথমে ঘটনাস্থল ও পরে হসপাতালে যান স্থানীয় সাংসদ কুজেন্দ্রলাল ত্রিপুরা। খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসন, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ ও খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের পক্ষ থেকে হতাহতদের জন‌্য আর্থিক সহাতার ঘোষণা দেওয়া হয়। জেলা পরিষদ সদস্য মংশৈ প্রু চৌধুরী অপু জানান, নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে সাত হাজার টাকা এবং আহতদের পাঁচ হাজার টাকা করে দেবেন তারা। আর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতদের প্রত‌্যেকের পরিবারের জন‌্য দেওয়া হবে পাঁচ হাজার টাকা করে। এছাড়া খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়ন নিহতদের পরিবারকে সাত হাজার টাকা করে এবং আহতদের তিন হাজার টাকা করে দেবে বলে জানিয়েছে।

Check Also

চিটাগাং চেম্বারের ২০১৭-২০১৮ এবং ২০১৮-২০১৯ মেয়াদকালের জন্য এম. এ. লতিফ এমপি সমর্থিত প্যানেলের মাহবুবুল আলম সভাপতি, মোঃ নুরুন নেওয়াজ সেলিম সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সৈয়দ জামাল আহমেদ সহ-সভাপতি পদে পুনঃনির্বাচিত

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি‘র ২০১৭-২০১৮ এবং ২০১৮-২০১৯ মেয়াদের সভাপতি, সিনিয়র সহ-সভাপতি ও …

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply