১০ মামলায় খালেদাকে ২৭ ফেব্রুয়ারি আদালতে হাজিরের নির্দেশ

রাষ্ট্রদ্রোহসহ ১০ মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ২৭ ফেব্রুয়ারি আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা।

বুধবার খালেদা জিয়ার পক্ষে তার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়ার সময় আবেদেনের পরিপ্রেক্ষিতে এ আদেশ দেন তিনি।

সরকারি কৌঁসুলি তাপস কুমার পাল সাংবাদিকদের বলেন, শেষবারের মতো আদালত এ আবেদন মঞ্জুর করেছেন, পরের তারিখে খালেদা জিয়া হাজির না থাকলে অভিযোগ গঠন ও গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হবে।

রাষ্ট্রদ্রোহ ছাড়া অন্যান্য মামলার মধ্যে রয়েছে- মিরপুরের দারুস সালাম থানায় নাশকতার আট মামলা ও যাত্রাবাড়ী থানার বিস্ফোরক আইনের মামলা।

গত বছর এসব মামলায় খালেদা জিয়া ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে হাজির হয়ে জামিন নেন।

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বলা হয়, ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত এক আলোচনা সভায় খালেদা জিয়া বলেন, ‘আজকে বলা হয় এত লক্ষ শহীদ হয়েছে, এটা নিয়েও অনেক বিতর্ক আছে।’

গত বছরের ২১ জানুয়ারি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার অনুমোদন দেয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ২৫ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম রাশেদ তালুকদার আদালতে ড. মোমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী ১২৩-ক/ ১২৪-ক/ ৫০৫ ধারায় মামলাটি দায়ের করেন।

বিস্ফোরক মামলায় বলা হয়, ২০১৫ সালের ২৩ জানুয়ারি রাতে যাত্রাবাড়ীর কাঠেরপুল এলাকায় গ্লোরি পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসে পেট্রলবোমা হামলায় ২৯ যাত্রী দগ্ধ হন। পরে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ১ ফেব্রুয়ারি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নূর আলম (৬০) নামের এক যাত্রী। এ ঘটনায় ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করে যাত্রাবাড়ী থানায় মামলা করেন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) কে এম নুরুজ্জামান।

মামলার উল্লেখ্যযোগ্য আসামিরা হলেন- বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সাবেক যুগ্ম মহাসচিব আমানউল্লাহ আমান, বরকত উল্লাহ বুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেন, শওকত মাহমুদ, বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল, চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস।

অন্যদিকে, ২০১৫ সালে দারুস সালাম থানা এলাকায় নাশকতার অভিযোগে আটটি মামলা দায়ের করা হয়। এই আট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আসামি করা হয়।

Check Also

ভোট কারচুপি করতে পারবে না বলেই বিএনপি ইভিএম পদ্ধতি বাতিলের দাবি জানিয়েছে : হানিফ

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ সদর আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব উল আলম হানিফ …

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply