বিমানের ইঞ্জিন পোড়ার ঘটনা তদন্তে মন্ত্রণালয়

বাংলাদেশ বিমানের ইঞ্জিন পুড়ে শত কোটি টাকা ক্ষতির  ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন, ইঞ্জিন প্রস্তুতকারী কোম্পানি, ওভারহোলিং কোম্পানি ও যুক্তরাষ্ট্রের ল্যাবরেটরিতে ক্ষতিগ্রস্ত ইঞ্জিন পরীক্ষার রিপোর্ট সংক্রান্ত সব ফাইল তলব করেছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।

বুধবার যুগান্তরে প্রকাশিত ‘তদন্তের সব ফাইল মন্ত্রণালয়ে তলব’ শীর্ষক এক বিশেষ প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রতিটি ইঞ্জিনের একটি করে ফুয়েল ও অয়েল ফিল্টার থাকে। দীর্ঘদিন পরিবর্তন না করার ফলে ফিল্টারটি অকেজো হয়ে পড়ে। এতে তেলের সঙ্গে সুপার এবজরমেন্ট পলিমার (এসএপি) জাতীয় পদার্থ ইঞ্জিনে প্রবেশ করে। যা তেলের সঙ্গে বিকিরণ ঘটিয়ে আগুন তৈরি করে। যাতে পুরো ইঞ্জিনটি পুড়ে যায়।

এ প্রসঙ্গে বিমানমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘অবহেলার কারণে যদি ইঞ্জিনের ফুয়েল ফিল্টার পরিবর্তন না করায় এই দুর্ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নতুন আনা এয়ারক্রাফটের ইঞ্জিন এভাবে পুড়িয়ে ফেলার তদন্ত যেনতেনভাবে কেউ করে পার পাবে না। এ নিয়ে মন্ত্রণালয় থেকে তদন্ত করা হবে।’

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

x

Check Also

সাড়ে ৫ ঘণ্টা পর শরীয়তপুরে ফেরি চলাচল শুরু

ঘন কুয়াশার কারণে বন্ধ হয়ে যাওয়া শরীয়তপুরের ইব্রাহিমপুর-চাঁদপুরের হরিণাঘাট নৌরুটে সাড়ে ৫ ঘণ্টা পর ফেরি ...